ফোকাস ডেস্ক:বর্তমান সরকার দেশের সকল মানুষের জন্য পুষ্টিসমৃদ্ধ সুষম খাদ্য নিশ্চিত করতে হলে শস্য বহুমূখীকরণ, উন্নত ও আধুনিক কলাকৌশল অবলম্বন,বিভিন্ন ফসলের উচ্চ ফলনশীল ও হাইব্রিড জাত প্রতিস্থাপন জরুরী। তাছাড়া জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় অভিযোজনযোগ্য প্রতিকূলতাসহিষ্ণু বিভিন্ন ফসল ও ফসলের জাত আবাদ সম্প্রসারণ করা অপরিহার্য। প্রতিবছরের ন্যায় এবারও কৃষি মন্ত্রণালয় উফশী আউশ ফসল চাষের জন্য দেশের সকল জেলাসমূহের ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ,সার,পরিবহন ব্যয় ও আনুস্ংগিক সহায়তা প্রদানের জন্য প্রণোদনা কার্যক্রম গ্রহণ করেছে।  

ফোকাস ডেস্ক:দেশে জনসংখ্যার মাথাপিছু ভোজ্য তেলের ব্যবহার বৃদ্ধির সাথে সামঞ্জস্য রেখে দেশীয় ভোজ্য তেলের উৎপাদন বৃদ্ধি করতে হবে। আমাদের মাটি ও আবহাওয়া উপযোগি নতুন নতুন তৈলবীজের জাত উদ্ভাবন করে ব্যাপকহারে আবাদকরে ভোজ্য তেলের আমদানি হ্রাস করতে হবে। একসময় ভোজ্য তেল হিসেবে সরিষাই প্রধান ছিল। সরিষা শুধু তেলই নয় এ থেকে পুষ্টি সমৃদ্ধ খৈল পাওয়া যায়, যা আমাদের মৎস্য ও পশু খাদ্য হিসেবে বেশ চাহিদা রয়েছে।

ফোকাস ডেস্ক:কৃষিমন্ত্রী মোঃ আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, শিক্ষার্থীদের ভালো মানুষ, সৎ ও চরিত্রবান এবং দেশপ্রেমে উজ্জীবিত মানুষ হিসেবে তৈরি করতে হবে। নৈতিক ও মূল্যবোধের শিক্ষায় শিক্ষিত করে উন্নত বাংলাদেশের যোগ্য নাগরিক হিসেবে প্রস্তুত করতে হবে। মানসম্মত শিক্ষা এবং সময় উপযোগী শিক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে। আজ থেকে ৫০ বছর আগে গ্রামীণ শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নতি সাধনে যাঁরা সচেষ্ট হয়েছিলেন, তাঁদের অবদান মহান, আমি তাদেরকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি।

ফোকাস:কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক বললেন, মানুষ আস্তে আস্তে পুষ্টিকর খাদ্যের দিকে যাচ্ছে। এক সময় শুধু ভাতের ওপরই নির্ভরশীল ছিলো। এখন মানুষ বেশি করে শাক-সবজি খাচ্ছে বলে মাথাপিছু চালের কনজাম্পশন দিন দিন কমছে। আগে যেখানে ১৮০ কেজি ছিলো, যেখানে বর্তমানে ১৫৬ কেজি লাগে। যে পরিমান ধান উৎপন্ন হচ্ছে তা মানুষের চাহিদা পূরণে সক্ষম।

ফোকাস ডেস্ক:তারুণ্যের শক্তি বাংলাদেশের সমৃদ্ধি এই তারুণ্যের সকল সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতে সরকার শতভাগ আন্তরিক। তারুণ্যের শক্তিকে কাজে লাগিয়ে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে বাংলাদেশ। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের যাত্রায় যুক্ত করা হবে তরুণদের।

নাহিদ বিন রফিক (বরিশাল): গত ১৫ মার্চ বরিশালের রহমতপুরস্থ আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের সম্মেলনকক্ষে ‘মধ্য মেয়াদী বাজেট কাঠামো প্রণয়ন ও তথ্য অধিকার আইন’ শীর্ষক কৃষি বিজ্ঞানীদের দুদিনব্যাপি প্রশিক্ষণে প্রধান অতিথি হিসেবে উদ্বোধন করেন বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার (অতিরিক্ত সচিব) রাম চন্দ্র দাস।

escort beylikduzu izmir escort corum surucu kursu malatya reklam