কৃষিমন্ত্রীর সাথে স্লোভানিয়ার রাষ্ট্রদূতের সাক্ষৎ

এগ্রিলাইফ ডেস্ক:স্লোভেনিয়ার রাষ্ট্রদূত jozef Drofenik আজ কৃষি মন্ত্রী ড.মো: আব্দুর রাজ্জাক এমপি’র সাথে মন্ত্রণালয় তার অফিসকক্ষে সাক্ষৎ করেন। সাক্ষাতে দ্বিপাক্ষিক নান বিষয়ে কথা হয়।  বাংলাদেশের উন্নয়নে স্লোভেনিয়া কাজ করতে আগ্রহের কথা জানান রাষ্ট্রদূত। রাষ্ট্রদূত বলেন; বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক বাড়ানোর ব্যাপারে গভীর আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্ক জোরদার করতে স্লোভানিয়ার ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিযোগের পরামর্শ দিবেন।

বাংলাদেশ থেকে স্লোভেনিয়া তৈরি পোশাক, শাকসবজি ও ফল আমদানি করতে পারে। তেমনি স্লোভেনিয়া থেকে বাংলাদেশ কৃষি-যন্ত্রপাতি আমদানি করতে পারে। খাদ্য উৎপাদনে বাংলাদেশের স্বনির্ভরতা অর্জনসহ আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে সরকার গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম এবং নানা অর্জন সম্পর্কে কৃষি মন্ত্রী রাষ্ট্রদূতকে অবহিত করেন।

কৃষিমন্ত্রী বলেন; দেশ এখন এগিয়ে চলছে উন্নয়নের পথে। বর্তমান সরকার উন্নয়নের পথ মসৃণে সবরকম পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। দেশে একশটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল তৈরী করেছে যেখানে ইতোমধ্যে অনেক দেশের বিনিয়োগকারীগণ শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপনসহ বিনিয়োগে আগ্রহী। এছাড়া দেশে এখন কোন বিদ্যুৎ ও গ্যাসের সমস্যা নেই, যে কোন শিল্প কলকারখানা স্থাপনের জন্য বাংলাদেশ এখন আদর্শ স্থান। বাংলাদেশ থেকে স্লোভেনিয়া সিরমিক, উচ্চ মানসম্পন্ন ওষুধসহ কৃষি পণ্য আমদানি করতে পারে বলেও তাকে জানান।  
 
উল্লেখ্য; ১৯৯৬ সালে স্লোভেনিয়ার সঙ্গে বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা পেলেও দুই দেশের সম্পর্ক বেশ পুরনো। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের পর যুদ্ধাহত অনেক মুক্তিযোদ্ধা চিকিৎসার জন্য তৎকালীন যুগোস্লাভিয়ার অন্তর্ভুক্ত দেশটিতে গিয়েছিলেন।

escort izmir