বোরো ধানের বীজতলার যত্ন

কৃষিবিদ এম আব্দুল মোমিন:শীতকালে বোরো ধানের বীজতলায় চারার বিশেষ যত্ন নিতে হবে। বিশেষ করে প্রচন্ড ঠান্ডায় যাতে চারাগুলোর বাড়বাড়তি ঠিকমতো হয় সেজন্য চারার বৃদ্ধির বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। শৈত্য প্রবাহের সময় বীজতলা স্বচ্ছ পলিথিন দিয়ে সকাল ১০/১১টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ঢেকে রাখতে হবে যাতে বীজতলার তাপমাত্রা বৃদ্ধি পায়। বীজতলার পানি সকালে বের করে দিয়ে আবার নতুন পানি দিতে হবে।

প্রতিদিন সকালে রশি টানা দিয়ে চারা থেকে কুয়াশার পানি ফেলে দিতে হবে। বীজতলার চারার গোড়ায় ৩-৫ সেন্টিমিটার (দেড় থেকে দুই ইঞ্চি) পানি ধরে রাখতে হবে। ঠান্ডার কারণে চারার ধসা রোগ দেখা দিলে বীজতলা থেকে পানি সরিয়ে দিতে হবে। চারা রোপণের সময় শৈত্য প্রবাহ থাকলে কয়েকদিন দেরি করে চারা রোপণ করা প্রয়োজন। এছাড়াও জমিতে ৫-৭ সেন্টিমিটার (দুই থেকে তিন ইঞ্চি) পানি ধরে রাখতে হবে।

রোপণের জন্য ৩৫-৪৫ দিনের চারা ব্যবহার করলে শীতে চারা কম মারা যায়, চারা সতেজ থাকে এবং ফলন বেশি হয়। এ সময় স্বল্প পরিমাণ ইউরিয়া সার এবং জিপসাম সার বীজতলায় প্রয়োগ করলে সুফল পাওয়া যায়। এছাড়া শুষ্ক বীজতলার মাধ্যমে চারা উৎপাদন করলে শীতের প্রকোপ থেকে চারাকে রক্ষা করা যায়। শুষ্ক বীজতলায় চারার বাড়বাড়তিও ভালো হয়। আর লবণাক্ত প্রবণ এলাকায় ব্রি ধান৪৭ এবং ব্রি ধান৬১ চাষাবাদ করা দরকার।

escort beylikduzu izmir escort corum surucu kursu malatya reklam