"সিলেটে বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনাঃ ভবিষ্যৎ ও করণীয়" শীর্ষক একটি গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত

বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস উপলক্ষ্যে সপ্তাহব্যাপী বিভিন্ন কার্যক্রম হাতে নিয়েছে 'প্রাধিকার'
সিকৃবি প্রতিনিধি:৩ মার্চ ২০১৯ রোজ রবিবার বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস উপলক্ষ্যে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি, অ্যানিমেল এন্ড বায়োমেডিকেল সায়েন্সেস অনুষদের কনফারেন্স রুমে "সিলেটে বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনাঃ ভবিষ্যৎ ও করণীয়" শীর্ষক একটি গোলটেবিল বৈঠক আয়োজন করে সিলেটের পরিবেশবাদী সংগঠন।

প্রাধিকারের সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন রিফাত এর সঞ্চালনায় উক্ত অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন ভেটেরিনারি, অ্যানিমেল এন্ড বায়োমেডিকেল সায়েন্সেস এর ডিন প্রফেসর ড. এ.টি.এম মাহবুব-ই-ইলাহি। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিল সিলেট বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম (ডিএফও)। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিল প্রফেসর ড. মো: মোহন মিয়া ডিপার্টমেন্ট অফ জেনেটিক্স এন্ড এ্যানিম্যান ব্রিডিং, প্রফেসর ড. মাহফুজুর রহমান ডিপার্টমেন্ট অফ মেডিসিন এবং বায়োটেকনোলজি এন্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ মেহেদি হাসান খান। এছাড়া আরও উপস্থিত ছিল সিলেট অঞ্চলে চারটি পরিবেশবাদী সংগঠন- প্রাধিকার, গ্রিন এক্সপ্লোর সোসাইটি, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) ও ভূমিসন্তান বাংলাদেশ এর সদস্যবৃন্দ।

বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবসে এবারের প্রতিপাদ্য ছিল লাইফ বিলো ওয়াটার: ফর পিপল অ্যান্ড প্লানেট’। জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণের লক্ষ্যে দিবসটি পালন করা হয়। ২০১৩ সালের ২০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৬৮তম অধিবেশনে আন্তর্জাতিক বিলুপ্তপ্রায় বন্যপ্রাণী এবং উদ্ভিদ সম্মেলনে ৩ মার্চকে বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়। বাংলাদেশও দিবসটি পালন করা হয়।

বিগত এক শতাব্দীতে বিশ্ব পরিবেশ থেকে উল্লেখযোগ্যসংখ্যক জলজপ্রাণী ও উদ্ভিদ প্রজাতির বিলুপ্তি ঘটেছে। বিভিন্নভাবে আমরা নদী,সমুদ্র দূষণ করে সামুদ্রিক জীববৈচিত্র্যকেই ধ্বংস করছি, সাথে সাথে নিজেদেরও অস্তিত্ব সংকটে ফেলছি। মাছ ধরার টুকরো উপাদান, কার্গো, কলকারখানা বর্জ্য পদার্থ, বাতিল অংশ, কিটনাশক, প্লাস্টিকের শপিং ব্যাগ, জাহাজের বর্জ্য ও তেল দূষিত করছে নদী ও সমুদ্রের জলকে। এতে ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ছে জলজপ্রাণীর পরিবেশ।

অনুষ্ঠানের এক পর্যায় সিলেটে বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনাঃ ভবিষ্যৎ ও করণীয় বিষয়ে সিলেটের পরিবেশবাদী সংগঠনগুলোর সভাপতি মতামত প্রকাশ করে। কিভাবে সরকারি ও বেসরকারি ভাবে জীববৈচিত্র রক্ষায় জোরদার ভূমিকা রাখা যায় সে বিষয়ে অলোচনা করা হয়। তাছাড়া  টিলাগড় বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ কেন্দ্রের পরিবেশ বন্যপ্রাণীর জন্য নিশ্চিত করা, সুরমা নদীর দূষণ রোধে করনীয়, সিলেট বন্যপ্রাণীর বাসস্থান নিশ্চিত করা সহ ইত্যাদি বিষয়ে সরকারি  হস্তক্ষেপ নেওয়া বিষয় তাদিক দিয়ে থাকে পরিবেশবাদী সংগঠন।

উল্লেখ্য, বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস উপলক্ষ্যে 'প্রাধিকার' সপ্তাহব্যাপী বিভিন্ন কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ভেক্সিনেশন ক্যাম্পেইন, ট্রিটমেন্ট ক্যাম্পেইন, সচেতনতা মূলক প্রোগ্রাম, ইকো পার্ক ট্যুর ইত্যাদি।

escort izmir