লেবু গাছে সাইট্রাস গ্রিনিং রোগ

ড. কে, এম, খালেকুজ্জামান: লেবু গাছের সাইট্রাস গ্রিনিং (Citrus greening) রোগটি ক্যানডিডেটাস লিবারিব্যাকটার এসিয়াটিকাস (Candidatus Liberibacter asiaticus)-নামক ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণে হয়ে থাকে। এশিয়ান সাইট্রাস সাইলিড (Diaphorina citri) দ্বারা এ রোগ বিস্তার লাভ করে। কলম এবং যন্ত্রপাতির মাধ্যমেও এ রোগ বিস্তার লাভ করে থাকে।

রোগের লক্ষণ
●সব ধরণের লেবু জাতীয় ফসলেই হয়ে থাকে।
●ডগার পাতা প্রথমে আক্রান্ত হয়।
●শিরা ও উপশিরাগুলো ক্রমশঃ গাঢ় সবুজ হতে থাকে, যার জন্য রোগের নাম সাইট্রাস গ্রিনিং হয়েছে।
●পাতাগুলো হলুদ হয়ে যায়।
●শিরা দূর্বল ও পাতা কুঁকড়িয়ে ডাই-ব্যাক-এর সৃষ্টি করে।
●পাতা ও গাছ খর্বাকৃতির হয়।
●ফলেও হলুদ রং-এর দাগ দেখা যায়।
●আক্রান্ত গাছের ফল ছোট হয়।
●ফলে রসের পরিমান কমে যায়।
●ফল স্বাদে তিতাযুক্ত হয়।

রোগের প্রতিকার:
●নীরোগ বীজতলার চারা ব্যবহার করতে হবে।
●বাগান পরিস্কার পরিচছন্ন রাখতে হবে।
●আক্রান্ত গাছ তুলে পুড়ে ফেলতে হবে।
●Psyliid bug দমনের জন্য ইমিডাক্লোপ্রিড গ্রুপের কীটনাশক (যেমন-অ্যাডমায়ার বা ইমিটাফ) প্রতি লিটার পানিতে ০.৫ মিলি হারে মিশিয়ে ৭ দিন পর পর ২-৩ বার স্প্রে করতে হবে।
●ট্রাই ব্যাসিক কপার সালফেট গ্রুপের ঔষধ (যেমন-কিউপ্রোক্স্যাট ৩৪৫ এসসি) প্রতি লিটার পানিতে ০.৫ মিলি হারে মিশিয়ে ৭-১০ দিন পর পর ২-৩ বার গাছে স্প্রে করতে হবে।
●স্ট্রেপ্টোমাইসিন সালফেট + টেট্রাসাইক্লিন হাইড্রোক্লোরাইড গ্রুপের ব্যাকটেরিয়ানাশক (যেমন-ক্রোসিন-এজি ১০ এসপি) প্রতি লিটার পানিতে ০.৮ গ্রাম হারে মিশিয়ে ৭-১০ দিন পর পর ২-৩ বার জমিতে গাছে স্প্রে করতে হবে।

বি:দ্র: ক্রোসিন-এজি ১০ এসপি ও কিউপ্রোক্স্যাট ৩৪৫ এসসি ঔষধ দুইটি পর্যায়ক্রমে একটা ব্যবহার করার পর আরেকটি ব্যবহার করতে হবে।
==================
লেখক:উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা (উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব)
মসলা গবেষণা কেন্দ্র, বিএআরআই
শিবগঞ্জ, বগুড়া।
মোবাইলঃ ০১৯১১-৭৬২৯৭৮
ইমেইলঃ This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.

antalya bayan escort bursa bayan escort adana bayan escort mersin bayan escort mugla bayan escort samsun bayan escort konya bayan escort