খামার ব্যবস্থাপনায় স্মার্ট প্রযুক্তি-গবাদি পশুর কানের ''ট্যাগ এন্ড ট্রেস"

কারিগরী প্রতিবেদক:দেশের প্রাণিসম্পদ সেক্টরে গবাদিপশুর ভূমিকা দিনদিন বেড়ে চলেছে। শিক্ষিত তরুণ উদ্যোক্তা থেকে বড় বড় শিল্পোদ্যোক্তারা এখন ডেয়রীসহ গরু মোটাতাজাকরণ শিল্পে বিনিয়োগ করছেন। তাদের জন্য এখন প্রয়োজন গরু, মহিষের কমার্শিয়াল খামারের প্রত্যেকটি প্রানীকে তথ্য ও উপাত্তের ভিত্তিতে স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনার আওতায় নিয়ে আসা।

এসব দিক বিবেচনা করে এনিম্যাল হেলথ্ সেক্টরের পরিচিত প্রতিষ্ঠান বায়ো কেয়ার এগ্রো লিঃ তথ্য প্রযুক্তিগত সেবা দিচ্ছে। খামার ব্যবস্থাপনায় স্মার্ট প্রযুক্তি-গবাদি পশুর কানের "ট্যাগ এন্ড ট্রেস" এই প্রযুক্তিতে গরু, মহিষের কমার্শিয়াল খামারের প্রত্যেকটি প্রানীকে তথ্য ও উপাত্তের ভিত্তিতে স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনার আওতায় নিয়ে আসা হয়। যা খামারিদের সর্বোচ্চ সুযোগ সুবিধা দিবে। এই প্রযুক্তিতে ব্যবহার করা হয় কানে একটি কিউআর কোড এর প্লাস্টিকের ট্যাগ ও মোবাইল অ্যাপ। সফটওয়্যারে প্রানীর প্রয়োজনীয় তথ্য উপাত্ত যেমন-টীকা প্রদান সম্পর্কিত তথ্য, কৃমিমুক্তকরন তথ্য, সুষম খাদ্য প্রস্তুত, খাদ্য তালিকা তৈরী ও প্রদান সম্পর্কিত তথ্য, স্বাস্থ্যগত তথ্য, দুধ ও মাংস উৎপাদন সম্পর্কিত তথ্য, কৃত্রিম প্রজনন সম্পর্কিত তথ্য, চিকিৎসা বিষয়ক তথ্য ইত্যাদি আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ইনপুট করে তথ্য উপাত্তগুলো আপডেট ও সংরক্ষণ করা হয়।

যেভাবে কাজ করবে(Herdman-Mobivet) অ্যাপটি এবং যা যা সুবিধা দিবে

১। এটি একটি এন্ড্রয়েট স্মার্ট ফোন অ্যাপ। অ্যাপটি গুগল প্লে-ষ্টোর (Google play store) থেকে ডাউনলোড করে মোবাইল ফোনে ইন্সটল করতে হবে। তারপরে প্লাস্টিকের ট্যাগটির কিউআর কোড স্ক্যান করে যাবতীয় তথ্য ইনপুট করতে হবে, ট্যাগটি স্ক্যান করলে অটোমেটিক একটি ইউনিক আইডি সেভ হবে। প্রত্যেকটি প্রাণীর জন্য আলাদা আলাদা আইডি নম্বরে সেভ থাকবে ঐ প্রাণীটির যাবতীয় তথ্য ও উপাত্ত।

২। প্রথমে খামারের নাম, খামার ম্যানেজারের নাম, শেড নম্বর, প্রাণীর জন্ম তারিখ বা বয়স, সেক্স, স্পেসিস, ব্রিড, ফার্ম ব্রিড, প্রাণীর নাম  এসব তথ্যগুলো ইনপুট করতে হবে।

৩। তারপরে ক্রমনুসারে প্রাণী কোন জাতের কত ভাগ সংকর, ওজন, গাভী হলে-বাছুর কত দিনের, লাইফ টাইমে কতটি বাচ্চা দিয়েছে, দৈনিক কত লিটার দুধ দেয়, কত দিন থেকে দুধ দিচ্ছে এসকল ডাটা সিস্টেমে ইনপুট দিতে হবে। এরপর প্রদত্ত ডাটা অনুসারে অ্যাপটি সমাধান দিবে।

৪। কৃত্রিম প্রজনন সম্পর্কিত তথ্য, যেমন-গাভীর শেষ প্রজনন সময়, বয়স, জাত, ওজনসহ সকল তথ্য সফটওয়্যার স্বয়ংক্রিয়ভাবে এ্যানালাইসিস করে খামারিকে গাভীর সম্ভাব্য প্রজননের সময় সম্পর্কে অবহিত করবে মোবাইল ফোনে এসএমএস এর মাধ্যমে।

৫। সফটওয়্যারে প্রাণীর খাদ্য তালিকা ও ওজন এর ব্যালেন্স নির্ধারণ করে ড্যাশবোর্ডে রিপোর্ট আকারে দেখাবে যেমন-কত কেজি ওজন এর গরুর জন্য কত ক্যালরির খাবার প্রয়োজন।

৬। বাছুর এর ক্ষেত্রে মা গাভীর সংকর ও প্রদত্ত পিতৃ ষাঁড় সিমেন সংকরায়নের ফলে প্রদত্ত বাছুরের বর্তমান সংকরায়ন অবস্থা নির্ভুলভাবে সংরক্ষণ করে।

৭। মাংস উৎপাদন এর ক্ষেত্রে প্রাণীতে ব্যবহার করা এন্টিবায়োটিক প্রদানের সময় রেকর্ড থাকে, এতে করে প্রাণীর মাংস এন্টিবায়োটিকমুক্ত কি না ট্রেস করা সম্ভব।

৮। যেহেতু ট্যাগটিতে ট্রেসিং সিস্টেম আছে তাই ট্যাগ প্রাণীর কানে পাঞ্চ করা থাকলে প্রাণী পৃথকীকরণ সহজতর হবে।
==========================
কাস্টমার সার্ভিস ও যোগাযোগ
হট লাইনঃ০১৯৯০-৪০০৮০৮
বায়ো কেয়ার এগ্রো লিঃ হাউস নম্বরঃ ৫৫৪ রোডঃ ০৯
বাইতুল আমান হাউসিং সোসাইটি আদাবর, ঢাকা- ১২০৭

escort izmir