বাকৃবি'র বৃহত্তর রংপুর সমিতির বার্ষিক বনভোজন ও নবীনবরণ

বাকৃবি প্রতিনিধি:বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিয়ে বার্ষিক বনভোজন ও নবীনবরণের আয়োজন করেছে বৃহত্তর রংপুর সমিতি, ময়মনসিংহ। শুক্রবার (১ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৭ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের হেলিপ্যাড থেকে গজনী অবকাশ বিনোদন কেন্দ্রের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেন তারা। বেলা ১১ টার দিকে শেরপুরের গজনীতে পৌঁছে যান তারা। গজনী অবকাশ বিনোদন কেন্দ্রের মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি স্তম্ভ, স্বপ্নলোক চিড়িয়াখানা, ওয়াচ টাওয়ার ও প্যাডেল বোটসহ বিভিন্ন রাইড উপভোগ করেন শিক্ষক শিক্ষার্থীরা।

বিকেলে মেয়েদের বালিশ খেলা, ছেলেদের মোড়গ লড়াই ও টিপ পড়ানো খেলার আয়োজন করা হয়। বালিশ খেলায় ১ম, ২য়, ৩য় স্থান লাভ করেন যথাক্রমে সাদিকা, অনন্যা ও কবিতা। মোরগ লড়াই খেলায়  ১ম, ২য়, ৩য় স্থান অর্জন করেন যথাক্রমে আকাশ, শামীম ও বদরুজ্জামান এবং টিপ খেলায় ১ম, ২য় ও ৩য় হন যথাক্রমে লেকচারার মো. হেলাল উদ্দিন, লেকচারার মো. আব্দুর রাজ্জাক ও শিবলী। খেলা শেষে রংপুর সমিতির নবীন শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়া হয়। পরে লটারী ড্র এর আয়োজন করা হয়। শেষে খেলাধূলা ও লটারিতে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন রংপুর সমিতির শিক্ষকরা। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. এ এইচ এম সাইফুল ইসলাম ও যুগ্ম সম্পাদক মারুফ হাসান।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ফাইন্যান্স বিভাগের অধ্যাপক মো. রইস উদ্দিন মিঞা, পোল্ট্রি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. শহীদুর রহমান, ফসল উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের লেকচারার মো. আব্দুর রাজ্জাক, ফিশারিজ ম্যানেজমেন্ট বিভাগের লেকচারার মো.হেলাল উদ্দিন, ডেইরী বিজ্ঞান বিভাগের লেকচারার মো. আহসান হাবীব ও পোল্ট্রি বিজ্ঞান বিভাগের লেকচারার বিপুল চন্দ্র রায় এবং অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন মিশু মোর্শেদ। সন্ধ্যা সাড়ে ৫ টার দিকে সকল শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেন।

escort izmir