পরামর্শ:যেভাবে নিবেন কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি প্রস্তুতি

আবুল বাশার মিরাজ:প্রিয় এইচএসসি ভাইয়া-আপুরা। ক দিনের মধ্যেই তোমাদের পরীক্ষা শেষ হবে। তবে তোমরা এখনও অনেকেই সিদ্ধান্ত হীনতায় ভুগছো। কি করবে, কোন কোচিং করবে, কোথায় করবে ইত্যাদি? তোমরা জানো দেশে আছে ৮ টি সরকারি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। কৃষিতে পড়লে বিসিএসে টেকনিক্যাল ক্যাডার, কৃষি গবেষণা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি পাওয়া খুবই সহজ। আর এ বছর গুচ্ছ পদ্ধতিতে পরীক্ষা হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। অর্থাৎ একই প্রশ্নে পরীক্ষা হবে সবার। কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি প্রস্তুতি অনেকটায় মেডিক্যালের মতই। তবে পাশাপাশি গণিতের প্রস্তুতি না থাকলে চ্যান্স পাওয়া যাবে না।

ভর্তি পরীক্ষায় মূলত পদার্থবিদ্যা, রসায়ন, গণিত এবং জীববিজ্ঞান বিষয়ে প্রশ্ন থাকে। ভর্তি পরীক্ষায় ভালো করতে চাইলে জীববিজ্ঞান ও রসায়নে বেশি জোর দিতে হবে। ভর্তি পরীক্ষায় উদ্ভিদের বিভিন্ন পর্বের নাম, সামুদ্রিক শৈবালের গঠন, উদ্ভিদের কোষ, সালোকসংশ্লেষণ, শ্বসন, প্রাণীর শ্রেণিবিভাগ, হাইড্রা, পরিপাকতন্ত্র, রক্ত সংবহনতন্ত্র অধ্যায় থেকে প্রশ্ন আসে বেশি।

রসায়নে মোলার ও মোলারিটি, জারণ-বিজারণ, রাসায়নিক সাম্যবস্থা অধ্যায় থেকে অঙ্ক আসে। পদার্থবিদ্যার কাজ, শক্তি ও ক্ষমতা, তড়িৎ, চুম্বক, আপেক্ষিক তত্ত্ব, ইলেকট্রনিকস সম্পর্কিত অধ্যায় থেকে গাণিতিক সমস্যা বেশি আসে। গণিতে ভালো করতে হলে প্রতিটি অধ্যায়ের সূত্র মুখস্থ রাখতে হবে। সূত্র থেকেও অনেক প্রশ্ন হয়। গাণিতিক সমস্যা সমাধানের সংক্ষিপ্ত পদ্ধতি আয়ত্ত করতে হবে। বেশি গুরুত্ব দিতে হবে সেট, ফাংশন, অমূলদ-মূলদ সংখ্যা, বিন্যাস, সমাবেশ, ত্রিকোণমিতি ও ক্যালকুলাসে। এছাড়াও বাজারে বিভিন্ন শর্ট টেকনিকের বই পাওয়া যায়। এ বইগুলো পড়লে চান্স পাওয়াটা সহজ হবে। পাশাপাশি বিগত সালের প্রশ্ন সলভ অবশ্যই করতে হবে।

-শিক্ষার্থী-কৃষি প্রকৌশল ও কারিগরী অনুষদ. বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ

escort izmir