ডিম না কুসুম ছাড়া ডিম!

ড. মোঃ হেমায়েতুল ইসলাম: কোলেস্টেরল কি? কোলেস্টেরল হচ্ছে পিচ্ছিল পদার্থ যা শরীরের কলিজাতে তৈরি হয়। ইহা কিছু কিছু খাবারে পাওয়া যায়। যা বিশেষ করে শরীরের কার্যকারিতা পরিচালনা করে এবং ভিটামিন ডি তৈরিতে কাজে লাগে। আমরা বেশির ভাগ মানুষ মনে করি কোলেস্টেরল শরীরের জন্য শুধু ক্ষতিকর।

প্রকৃতপক্ষে, কোলেস্টেরল আমাদের দেহের প্রতিটা কোষে পাওয়া যায়। কোলেস্টেরল ছাড়া কোনো কোষই কাজ করতে পারে না। কোলেস্টরেল আমাদের রক্তে মিশে না কিন্তু রক্তের মাধ্যমে পরিবাহিত হয়ে কোষের লিপোপ্রোটিন তৈরি করে। এটি আমাদের শরীরে হরমোন তৈরি করে, যা এড্রেনাল গ্ল্যান্ড, ওভারি ও টেসটিসে জমা স্টেরয়েড হরমোনে রূপান্তরিত হয়। কোলেস্টেরল খাদ্য হজমে সহায়তা করে। কলিজাকে বাইল তৈরিতে সাহায্য করে। এই বাইলই আবার বিশেষ করে চর্বি জাতীয় খাদ্যকে হজমে সহায়তা করে। এর অভাব হলে পুনরায় হৃদরোগ হবার সম্ভাবনা থাকে। আমেরিকান হার্ট এসোসিয়েশনের মতে, কোলেস্টেরল রক্তে মিশে না কিন্তু পরিবাহিত হয়ে লিপোপ্রোটিন গঠন করে।

লিপোপ্রোটিন সাধারণত দুই প্রকার। প্রথমত, লো-ডেনসিটি লিপোপ্রোটিন সংক্ষেপে যাকে বলে এল.ডি.এল. (LDL)। যাকে সাধারণত খারাপ কোলেস্টেরল বলে। অন্যটি হলো হাই-ডেনসিটি লিপোপ্রোটিন সংক্ষেপে যাকে এইচ.ডি.এল. (HDL)। যা ভালো কোলেস্টেরল নামে পরিচিত। HDL সাধারণত: হার্টকে সুরক্ষা করে। পক্ষান্তরে LDL রক্তনালীর কোষ প্রাচীর তৈরি করে যার ফলে হৃদরোগ হয়।

এছাড়া আরও এক ধরনের খারাপ কোলেস্টেরল আছে যা এল.পি. নামে পরিচিত এবং এটি LDL এরই রূপান্তর যেমন এল.পি.(a), এল.ডি.এল. এবং এইচ.ডি.এল. যা ট্রাইগ্লিসারয়েডের সঙ্গে মিশে চর্বি তৈরি করে। ইহা শরীরের মোট কোলেস্টেরলের পরিমাণ বোঝায়।

৭০ কিলোক্যালরীর একটি ৫৩ গ্রামের ডিমের পুষ্টিমান::

পুষ্টির নাম    পরিমাণ শতকরা ভাগ
ফ্যাট     ৫ গ্রাম ৮%
কোলেস্টেরল ১৯৫ মি.গ্রা ০.৮%
সোডিয়াম ৬৫ মি.গ্রা ৩% 
কার্বোহাইড্রেট    ১ গ্রাম ১% 
ফাইবার ০    
সুগার ০ 
প্রোটিন     ৬ গ্রাম  ১৭%
ভিটামিন    ৩ গ্রাম     ১৫%
রিবোফ্লাভিন ০    ১৫%
ভিটামিন-বি১২   ০    ৫০%
নিয়াসিন ০    ৮%
ফোলেট    ০    ১৫%

আবার, ডিমের LDL কোলেস্টেরলে তিন ধরনের উপাদান থাকে। ছোট, মাঝারী ও বড়। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে যে, বড় LDL উপাদানের চেয়ে ছোট ও মাঝারী LDL হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়। ডিম খেলে ডিমের ছোট ও মাঝারী LDL উপাদানগুলো বড় LDL উপাদানে পরিণত হয় যা হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়।

একটি ডিমে ১৯৫ মিলিগ্রাম কোলেস্টেরল থাকে। একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের প্রতিদিন ৩০০ মিলিগ্রাম কোলেস্টেরল প্রয়োজন হয়। কাজেই প্রতিদিন দুইটি ডিমের সমপরিমাণ কোলেস্টেরল প্রয়োজন। যদি একজন মানুষ খাবারের মাধ্যমে বিশেষ করে ডিমের মাধ্যমে গ্রহণ করে। সেক্ষেত্রে গবেষণায় দেখা গেছে, ৭০% মানুষের কোলেস্টেরল বৃদ্ধি পায় না ও কলিজাকে কম কাজ করতে হয়।

অতএব পরিশেষে আমরা বলতে পারি, যে কোনো অবস্থায় ডিমের কুসুম সহ খাওয়ায় শ্রেয়। একজন মানুষ প্রতিদিন নূন্যতম ২টি ডিম খেলে তার দৈনন্দিন চাহিদার কোরেস্টেরল পেয়ে থাকে।
===============================
লেখক:ডি.ভি.এম, এম.এস ইন অবস্ট্রেটিক্স, পি.এইচ.ডি
সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ লাইভস্টক সোসাইটি ও
ডেপুটি চিফ ভেটেরিনারি অফিসার, ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সায়েন্সেস বিভাগ, রাবি

তথ্য সূত্র:
1. Food Chemistry 15 October 2009, Vol.116 (4)-914, doi 1016 foodchem. 2009.03.046
2. Curr Opin Clin Nutr Metab Care. 2012 Mar; 15(2):117-21
3. Metabolism July 1965, Vol.14(7):1173-7
4. Nutrition Reviews, 2009, 67(11), 615-623
5. Am J Cardiol. 2011 Apr 15;107(8):1173-7
6. International Journal of Obesity. 2008 Vol.32
7. Am J Clin Nur August 1999 Vol.70 no.2, 247-251.
8. International Journal of Obesity 2008 vol.32, 1545-1551.

antalya bayan escort bursa bayan escort adana bayan escort mersin bayan escort mugla bayan escort samsun bayan escort konya bayan escort