"সংসদে কৃষি বিপণন বিল-২০১৮" উত্থাপন

"সংসদে কৃষি বিপণন বিল-২০১৮" উত্থাপন

ফোকাস ডেস্ক:জাতীয় সংসদে "কৃষি বিপণন বিল-২০১৮" উত্থাপন করা হয়েছে। সোমবার (১০ সেপ্টেম্বর) সংসদের ২২তম অধিবেশনে বিলটি উত্থাপন করেন কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী। পরে বিলটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সংসদে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।

প্রস্তাবিত আইনে বলা হয়েছে, লাইসেন্স ছাড়া প্রজ্ঞাপিত বাজারে বিপণন, লাইসেন্স ছাড়া গুদাম ও হিমাগার পরিচালনা করলে অপরাধ হিসেবে বিবেচিত হবে। এছাড়া, অতিরিক্ত চার্জ আদায়, কর্মচারীকে বাধা, কৃষিপণ্যের পাইকারি ও খুচরা বিক্রয় মূল্য প্রদর্শন না করলে, কৃষিপণ্যে ক্ষতিকারক রাসায়নিক দ্রব্য ব্যবহার করলে, ওজনে কম দিলে অপরাধ হবে বলে প্রস্তাবিত আইনে বলা হয়েছে।

এসব অপরাধের জন্য একবছরের জেল ও একলাখ জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। একই অপরাধ পুনরায় করলে দ্বিগুণ দণ্ড হবে। এ আইনের অধীনের অপরাধগুলোর জন্য মোবাইল কোর্ট দণ্ড দিতে পারবে বলে প্রস্তাবিত আইনে বলা হয়েছে। ১৯৫৯, ১৯৬৪ ও ১৯৮৫ সালে বিভিন্ন সময় কৃষি বাজার ব্যবস্থাপনা, পণ্য ক্রয়-বিক্রয় নিয়ে আইন করা হয়। এসব আইন প্রয়োজনীয় সংশোধন করে বিলটি আনা হয়েছে।

বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্পর্কে মতিয়া চৌধুরী বলেন, ‘কৃষকের উৎপাদিত কৃষিপণ্যের উপযুক্ত মূল্যপ্রাপ্তি নিশ্চিত করার পাশাপাশি সুষ্ঠু বাজার ব্যবস্থাপনার সম্প্রসারণ, কৃষি ব্যবসার উন্নয়ন, কৃষিপণ্য উৎপাদন ও বিপণন কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে গতিশীলতার আনতে এবং দেশের কৃষিজ অর্থনীতি শক্তিশালী করার উদ্দেশ্যে বিলটি আনা হয়েছে।’

wso shell Indoxploit shell fopo decode hızlı seo googlede üst sıraya çıkmak seo analiz seo nasıl yapılır iç seo nasıl yapılır evden eve nakliyat halı yıkama bmw yedek parça hacklink panel bypass shell hacklink böcek ilaçlama paykasa fiyatları hacklink Google