"সংসদে কৃষি বিপণন বিল-২০১৮" উত্থাপন

ফোকাস ডেস্ক:জাতীয় সংসদে "কৃষি বিপণন বিল-২০১৮" উত্থাপন করা হয়েছে। সোমবার (১০ সেপ্টেম্বর) সংসদের ২২তম অধিবেশনে বিলটি উত্থাপন করেন কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী। পরে বিলটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সংসদে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।

প্রস্তাবিত আইনে বলা হয়েছে, লাইসেন্স ছাড়া প্রজ্ঞাপিত বাজারে বিপণন, লাইসেন্স ছাড়া গুদাম ও হিমাগার পরিচালনা করলে অপরাধ হিসেবে বিবেচিত হবে। এছাড়া, অতিরিক্ত চার্জ আদায়, কর্মচারীকে বাধা, কৃষিপণ্যের পাইকারি ও খুচরা বিক্রয় মূল্য প্রদর্শন না করলে, কৃষিপণ্যে ক্ষতিকারক রাসায়নিক দ্রব্য ব্যবহার করলে, ওজনে কম দিলে অপরাধ হবে বলে প্রস্তাবিত আইনে বলা হয়েছে।

এসব অপরাধের জন্য একবছরের জেল ও একলাখ জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। একই অপরাধ পুনরায় করলে দ্বিগুণ দণ্ড হবে। এ আইনের অধীনের অপরাধগুলোর জন্য মোবাইল কোর্ট দণ্ড দিতে পারবে বলে প্রস্তাবিত আইনে বলা হয়েছে। ১৯৫৯, ১৯৬৪ ও ১৯৮৫ সালে বিভিন্ন সময় কৃষি বাজার ব্যবস্থাপনা, পণ্য ক্রয়-বিক্রয় নিয়ে আইন করা হয়। এসব আইন প্রয়োজনীয় সংশোধন করে বিলটি আনা হয়েছে।

বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্পর্কে মতিয়া চৌধুরী বলেন, ‘কৃষকের উৎপাদিত কৃষিপণ্যের উপযুক্ত মূল্যপ্রাপ্তি নিশ্চিত করার পাশাপাশি সুষ্ঠু বাজার ব্যবস্থাপনার সম্প্রসারণ, কৃষি ব্যবসার উন্নয়ন, কৃষিপণ্য উৎপাদন ও বিপণন কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে গতিশীলতার আনতে এবং দেশের কৃষিজ অর্থনীতি শক্তিশালী করার উদ্দেশ্যে বিলটি আনা হয়েছে।’