Feed Cost Challengesঃ ফিড টেকনোলজি ও অপ্টিমাইজেশনেই সমাধান

ফর্মূলেশন ও ফিড টেকনোলোজির সঠিক ধারনা ও অপ্টিমাইজেশনই পারে ফিড উৎপাদন ব্যয়ের চ্যালেঞ্জগুলি মোকাবেলা করতে
এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম: দিনদিন বাড়ছে ফিড তৈরীর কাঁচামালের দাম। অন্যদিকে ডিম ও ব্রয়লার উৎপাদনে ফিডের পিছনেই সিংহভাগ ব্যয় বহন করতে হয় খামারীদের। তবে ফিড ফর্মূলেশনে এবং ফিড টেকনোলোজি সম্পর্কে উচ্চ ধারনা ও এটি দক্ষতার সাথে প্রয়োগ করা গেলে ফিড উৎপাদন ব্যয়ের চ্যালেঞ্জগুলি সফলভাবেই মোকাবেলা সম্ভব।

৬ অক্টোবর শনিবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশের ৩-ডি সেমিনার হলে "Feed Cost Challenges: Application of Biotechnological Tools can be an Approach"-শীর্ষক এক কারিগরী সেমিনারে এমনটাই জানালেন আলোচকবৃন্দ। যুগোপোযোগী এ সেমিনারের আয়োজক ছিল অনলাইনভিত্তিক নলেজ শেয়ারিং গ্রুপ পি পি বি ( Poultry Professionals Bangladesh.)

সেমিনারে; দিনের প্রথম পর্বে সকাল ১০ টায় PPB কোর টিম মেম্বার ডা. নন্দ দুলাল টিকাদারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র পোল্ট্রি প্রফেশনাল ও এজি এগ্রো ইন্ডাষ্ট্রিজের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ লুৎফর রহমান। এ পর্বে Dr. Pradeep Krishnan, Evonik SEA Pte Ltd.-এর Senior Technical Service Manger কারিগরী বক্তব্য উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন সমগ্র বিশ্বেই ফিড উৎপাদন ব্যয়ের বিষয়গুলি ব্যাপক চ্যালেঞ্জের মুখে। তবে আশার কথা হলো গবেষণা ও উন্নয়নের মাধ্যমে এগুলো এখন বেশ দক্ষতার সাথেই মোকাবেলা করা হচ্ছে।

মধ্যাহ্ন ভোজের বিরতির পর সেমিনারে পর্বে দ্বিতীয় পর্বে বিশিষ্ট পোল্ট্রি কনসালট্যান্ট ও PPB এর সমন্বয়ক, কৃষিবিদ অঞ্জন মজুমদার সুন্দরভাবে সেমিনারের মূল বিষয়গুলি তুলে ধরেন।


সেমিনারে আলোচকগন বলেন নিরাপদ পোল্ট্রি পন্য উৎপাদন করতে হলে খাদ্যকেও নিরাপদভাবে তৈরী করতে হবে। গুণগত মান অক্ষুন্ন রেখে ফিডের উৎপাদন ব্যয় কমানোর বিষয়টি চ্যালেঞ্জ মনে হলেও অসম্ভব কিছুই নয়। একটি কার্যকর টিম ওয়ার্কের মাধ্যমে নিয়মিতভাবে এ ধরনের কর্মশালা করা গেলে সকলেই উপকৃত হবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন আলোচকরা।

গ্লোবাল মার্কেটে ভোক্তারা এখন এন্টিবায়োটিকের অপপ্রয়োগের ব্যাপারে অত্যন্ত কঠোর। কাজেই মেধাবী জাতি হিসেবে পরবর্ত্তী প্রজন্মকে গড়ে তুলতে চাইলে আমাদের সকলকেই আন্তরিক হতে হবে। আলোচকরা আরো বলেন ভালোমানের ফিড তৈরী করতে চাইলে বিজ্ঞানী ও গবেষকদের এগিয়ে আসতে হবে। এখাতে গবেষণা ও উন্নয়নের কাজগুলি ব্যাপক পরিসরে করার ব্যাপারে মত দেন তারা।

আলোচনায় অংশগ্রহন করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক এবং নাহার এগ্রো গ্রুপের চেয়ারম্যান ড: মোহাম্মদ শামছুদ্দোহা, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের এনিম্যাল সায়েন্স বিভাগের অধ্যাপক ড. আবুল কালাম আজাদ, এজি এগ্রো'র কনসালট্যান্ট কৃষিবিদ মো. আকতারুজ্জামান, খন্দকার মোঃ মহসীন, সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ পোল্ট্রি খামার রক্ষা জাতীয় পরিষদ, ড: স্বপন কুমার ফৌজদার, সহযোগী অধ্যাপক, Dept of poultry Science, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং পিপিবি কোর টিম মেম্বার, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের এনিম্যাল সায়েন্স এন্ড নিউট্রিশন বিভাগের অধ্যাপক প্রফেসর ড. আবু সাদেক মোহাম্মদ সেলিম, ডাঃ মোঃ মোজ্জাম্মেল হক খান এবং ডাঃ সনজিৎ চক্রবর্তী প্রমুখ।

পরে এক প্যানেল ডিসকাশনে অংশগ্রহন করেন পোল্ট্রি প্রফেশনালরা; প্যানেলে প্রফেশনালদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন Dr. Pradeep Krishnan, ডাঃ সনজিৎ চক্রবর্তী, কৃষিবিদ একেএম রফিকুল ইসলাম চৌধুরী, রুহুল আমিন সরকার, Aung Tan Aye. ডা. অলোক সরকার, নিশীথ কুমার মন্ডল প্রমুখ।


ডাঃ সুব্রত মালাকার (জয়) ও কৃষিবিদ নুসরাত (লিজা) যৌথ ভাবে সেমিনারটি উপস্থাপনা করেন। সেমিনারে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আগত ২০০ শতাধিক পোল্ট্রি প্রফেশনাল অংশগ্রহন করেন।

সেমিনারে আগত প্রফেশনালরা এগ্রিলাইফ২৪ ডটকমকে বলেন, খামার থেকে উৎপাদিত ডিম ও ব্রয়লারের ন্যায্যমূল্য পাচ্ছেন না খামারীরা। বছরের অধিকাংশ সময়েই দেশের পোল্ট্রি ইন্ডাষ্ট্রিতে এ ধারা বিরাজমান থাকায় সেক্টরে ব্যাপক সম্ভাবনা ও সুযোগ থাকা সত্ত্বেও আশানুরূপ ফল লাভে অনেকেই ব্যর্থ হচ্ছেন।তবে এ ধরনের সেমিনার নিয়মিত করা গেলে এমন সমস্যাগুলো থেকে থীরে ধীরে উত্তরণ পাওয়া সম্ভব। তারা এ সেমিনারটি আয়োজনে PPB (Poultry Professionals Bangladesh)-কে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান এবং এর ধারাবাহিকতা বজায় রাখার বিশেষ অনুরোধ করেন।