আমের বোটা পঁচা (Stem end rot) রোগ

ড. কে, এম, খালেকুজ্জামান:আমের বোটা পঁচা (Stem end rot) রোগটি ল্যাসিওডিপ্লোডিয়া থিওব্রোমি (Lasiodiplodia theobromae)-নামক ছত্রাকের আক্রমণে হয়ে থাকে। রোগের জীবানু রোগাক্রান্ত মরা ডাল বা কান্ডে অবস্থান করে। বর্ষাকাল শুরু হলে ছত্রাকের বীজকণা উৎপাদন বেড়ে যায় এবং বাতাসের মাধ্যমে তা বিস্তার লাভ করে। গাছ থেকে আম পাড়ার পর গাছের নীচে জমা করে রাখলে বাতাসে ভাসমান জীবাণুর কনিডিয়া বোঁটার আঠায় পতিত হয়ে আঁটকে যায়।

রোগের লক্ষন:

  • পাকা আমের বোটা সংলগ্ন অংশের কিছু জায়গায় কালো দাগ পড়ে।
  • পরবর্তী কয়েক ঘন্টার মধ্যে এ দাগ আকারে বড় হয়ে গোলাকৃতি ধারণ করে
  • আর্দ্র আবহাওয়ায় কালো দাগগুলো দ্রুত বাড়তে থাকে এবং ২-৩ দিনের মধ্যে আমের অনেক অংশ কালো বর্ণে পরিনত করে
  • আক্রান্ত আমের মধ্যত্বকের রসালো ভক্ষনযোগ্য অংশের রং বাদামী হয় এবং নরম হয়ে পচতে শুরু করে
  • অনেক সময় আমের উপরিভাগে আঙ্গুলের চাপ বসালে আঙ্গুল নীচের দিকে বসে পড়ে এবং ভিতরের তীব্র গন্ধযুক্ত আমের রস বের হয়ে আসে
  • এ রোগের কারণে বাংলাদেশে কমপক্ষে ১৫% আম নষ্ট হয়।

রোগের প্রতিকার:  

  • আম বাগান পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।
  • মেঘমুক্ত রোদ্রৌজ্জল দিনে আম সংগ্রহ করতে হবে
  • আম সংগ্রহের সময় যাতে আঘাত বা ক্ষত না হয় সে দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে
  • ৫ সেন্টিমিটার (২ ইঞ্চি) বোটাসহ আম সংগ্রহ করলে রোগের আক্রমন হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়
  • আম সংগ্রহ করে গরম পানিতে (৫৫ C তাপমাত্রায় ৫-৭ মিনিট) ডুবিয়ে রাখার পর খোলা বাতাসে শুকিয়ে নিতে হবে।
  • আম পাড়ার পর পরই কার্বেন্ডাজিম গ্রুপের ছত্রাকনাশক (যেমন-অটোস্টিন) প্রতি লিটার পানিতে ১ গ্রাম হারে মিশিয়ে দ্রবনের মধ্যে ৫ মিনিট ডুবিয়ে রাখতে হবে।

=========================
লেখক:উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা (উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব)
মসলা গবেষণা কেন্দ্র, বিএআরআই
শিবগঞ্জ, বগুড়া।
মোবাইলঃ ০১৯১১-৭৬২৯৭৮
ইমেইলঃThis email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.