এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:রাজধানী ঢাকার উত্তরাতে ''কোরিয়ান ফাঞ্চাইজি চেইন রেষ্টুরেন্ট ''bb.q বাংলাদেশ''-এর উত্তরা আউটলেট এর কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করেছে। ২২ মে মঙ্গলবার, উত্তরা ১ নং সেক্টরে (আফতাব হেরিটেজ, হাউজ ন: ০২, রোড নো: ০৪) এ আউটলেটের শুভ উদ্বোধন করা হয়।

ফাম টু ডাইনিং ডেস্ক:দানাদার শস্যে আমরা স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছি। পেটের ক্ষুধা নিবারণ হয়েছে। এখন মানসম্মত খাদ্যের উৎপাদনের দিকে নজর দিতে হবে। মানসম্মত খাদ্য উৎপাদন করতে পারলে বৈদেশিক মুদ্রার সাশ্রয় করা সম্ভব হবে।

এগ্রিলাইফ ডেস্ক:সম্প্রতি গোল্ডেন বার্ন কিংডম প্রাঃ লিমিটেড এবং Caslance Bio-Tech Co. China এর যৌথ উদ্যোগে বাস্তবায়িত কৃষি গবেষণা মাঠে “সারের কার্যকারীতা বৃদ্ধির মাধ্যমে বোরো ধানের ফলন বাড়াতে Loss Control Agent (LCA) এর প্রভাব “শীর্ষক একটি মাঠ দিবস ধামরাই উপজেলার টোপেরবাড়ী গ্রামে অনুষ্ঠিত হয়।

ফার্ম টু ডাইনিং ডেস্ক:সমাজের সর্বস্তরে নিরাপদ খাদ্য ও পুষ্টি নিশ্চিত করতে হলে জনসচেতনতা সৃষ্টির বিকল্প নেই। সরকারের খাদ্য ও পুষ্টি সংশ্লিষ্ট দপ্তরসমূহ, প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ সর্বস্তরের জনগণকে খাদ্যের উৎপাদন, সরবরাহ, সংরক্ষণ, প্রক্রিয়াজাতকরণ বিষয়ে সর্বাত্মক সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

ফার্ম টু নিউট্রিশন ডেস্ক:২১ মে, ২০১৮ সোমবার, মাগুরা জেলার সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে “নিরাপদ খাদ্য উৎপাদনে যুব সমাজের ভূমিকা” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। উন্নয়ন ধারা ও স্বাধীন কৃষক সংগঠন-এর যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এই সেমিনারে প্রধান অতিথি এবং আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব মোঃ আবু সুফিয়ান, উপজেলা নির্বাহি অফিসার-মাগুরা সদর এবং বিশেষ অতিথি ও আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মোঃ রুস্তম আলী, উপজেলা চেয়ারম্যান -মাগুরা সদর, মোঃ রুহুল আমিন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা, মোঃ আনোয়ারুল করিম, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এবং ঝুমুর সরকার, উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা, সদর উপজেলা।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মোঃ খুরশীদ আলম, সভাপতি-স্বাধীন কৃষক সংগঠন কেন্দ্রীয় কমিটি এবং নিরাপদ খাদ্য সংশ্লিষ্ট প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কৃষিবিদ কৃষ্ণ দাস সাহা, সহযোগি সমন্বয়কারি, উন্নয়ন ধারা এবং সেমিনার সঞ্চালনা করেন উন্নয়ন ধারার সমন্বয়কারি মোঃ হায়দার আলী।

সেমিনারে উক্ত বিষয়ের আলোকে বক্তব্য প্রদান করেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি জনাব মোঃ মোজাহারুল ইসলাম, চেয়ারম্যান-হাজিপুর ইউনিয়ন, মোঃ কবির হোসেন, চেয়ারম্যান-হাজরাপুর ইউনিয়ন, শামীম আহমেদ খান, সাধারণ সম্পাদক-মাগুরা প্রেসক্লাব, মাগুরা জেলা এনজিও সমন্বয় কমিটির সভাপতি আঃ হালিম, মাগুরা সদর উপজেলা এনজিও সমন্বয় কমিটির সভাপতি আবু ইমাম মোঃ বাকের এবং কৃষক সংগঠনের প্রতিনিধিবৃন্দ। এছাড়া সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের উপসহকারি কৃষি কর্মকর্তাবৃন্দ, স্বাধীন কৃষক সংগঠনের শৈলকুপা ও মাগুরা অঞ্চল থেকে আসা কৃষক-কৃষাণী, কৃষি উদ্যোক্তা, ভোক্তা এবং সাংবাদিকবৃন্দ উক্ত সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন।   



বক্তারা বলেন, আমরা প্রতিদিন যেসব খাদ্যদ্রব্য খাই সেসব মাঠে উৎপাদন করার সময় ব্যাপকভাবে রাসায়নিক সার ও বালাইনাশক ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তারপর এসব ফসল যখন প্রক্রিয়াজাত, সংরক্ষণ ও বাজারজাতকরণ করা হয় তখন প্রত্যেক ধাপে মিশানো হয় নানান ভেজালদ্রব্য এবং বিষাক্ত রাসায়নিক পদার্থ। প্রতিদিন এসব ভেজাল ও বিষাক্ত রাসায়নিক দ্রব্য খেয়ে খেয়ে আপনাদের এবং দেশের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম আমাদের সন্তানদের স্বাস্থ্য মারাত্মক ঝুঁকির মধ্যে পড়ছে। রোগবালাই দিন দিন বেড়েই চলেছে। পাশাপাশি, নষ্ট হচ্ছে মাটি, দুষিত হচ্ছে পরিবেশ, ধ্বংস হচ্ছে জীববৈচিত্র্য। পরিবেশ ও প্রতিবেশ বজায় রেখে নিরাপদ খাদ্য উৎপাদনে জৈব কৃষি চর্চার সময় এখনই। দেশে এখন তারুণ্যের জয়জয়কার এবং ডিজিটালাইজেশনের সকল সুবিধা তাদের মুঠোয়। আর তাই দেশের উন্নয়নের নিমিত্তে নিরাপদ খাদ্য উৎপাদনসহ কৃষি সংশ্লিষ্ট কাজে যুব সমাজের অন্তর্ভুক্তি বা উদ্যোগই হতে পারে এর মুলমন্ত্র।

ফার্ম টু নিউট্রিশন ডেস্ক:খাদ্যমন্ত্রী মোঃ কামরুল ইসলাম বলেছেন, নানা প্রতিকূলতা অতিক্রম করেই বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে এবং খাদ্য নিরাপত্তার বিভিন্ন ক্ষেত্রে অগ্রগতি লাভ করছে। খাদ্য উৎপাদন থেকে শুরু করে খাদ্য গ্রহণ পর্যন্ত নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে চাই। বর্তমানে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ যেভাবে কাজ করছে এবং ক্যাবসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান ও গণমাধ্যম যেভাবে সহায়তা করছে তাতে শীঘ্রই আমরা আমাদের কাংখিত সাফল্য অর্জন করতে সক্ষম হবো।