রাজশাহীতে "ভেলিডেশন অব গুড প্র্যাকটিসেস অব অন-ফার্ম ল্যাম্ব প্রডাকশন সিস্টেমস্" শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মসূচী সম্পন্ন

ফার্ম টু নিউট্রিশন ডেস্ক:রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নারিকেলবাড়ীয়া ক্যাম্পাসে ভেটেরিনারি ক্লিনিক, এ আই এন্ড ট্রেনিং সেন্টারে ৫-৬ নভেম্বর ২ দিন ব্যাপি ভেড়া পালনের উপর প্রশিক্ষণ কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়। প্রশিক্ষণের শেষ দিনে ৬ অক্টোবর বিকেল ৪ টায় প্রকল্প সুবিধাভোগীদের মাঝে সনদ বিতরণ করা হয়। "ভেলিডেশন অব গুড প্র্যাকটিসেস অব অন-ফার্ম ল্যাম্ব প্রডাকশন সিস্টেমস্" শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে আত্মকর্মসংস্থান ও দারিদ্র বিমোচনে ভেড়া পালনের গুরুত্বের উপর রাজশাহী, নাটোর, পাবনা ও সিরাজগঞ্জ অঞ্চলের প্রকল্পের কর্মকর্তারা ট্রেনিং এ অংশগ্রহন করেন।

সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রকল্পের প্রিন্সিপাল ইনভেস্টিগেটর ড. রাশিদা খাতুন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সায়েন্সেস বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. এস. এম. কামরুজ্জামান। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি চীফ ভেটেরিনারি অফিসার ড. মো: হেমায়েতুল ইসলামের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রকল্পের কো-ইনভেস্টিগেঁর ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সায়েন্সেস বিভাগের প্রফসর ড. মো: জালাল উদ্দিন সরদার, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রকৌশলী মো: আবুল কালাম আজাদ ও শাহ্ কৃষি পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাতা মো: জাহাঙ্গীর আলম শাহ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন প্রকল্পের কো-ইনভেস্টিগেঁর ড. মো: আখতারুল ইসলাম। তিনি বলেন বাংলাদেশে ৩.২ মিলিয়ন ভেড়া আছে কিন্তু ভেড়ার মাস হিসাবে কোন মাংস বাজারে পাওয়া যায় না বিধায় ভেড়ার মাংসকে ভেড়ার মাংস বলেই বিক্রি করা ও দারিদ্র বিমোচনের হাতিয়ার হিসেবে প্রতিপালন করার জন্য রাজশাহী, পাবনা, নাটোর ও সিরাজগঞ্জের এনজিও পার্টনারদের মাঝে উদ্ভুদ্ধ করণ প্রশিক্ষণ কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন প্রকল্পের রিসার্চ ফেলো মো: ইসমাইল হক, নাসরিন পারভীন, নির্বাহী পরিচালক শুচীতা সমাজ উন্নয়ন সংস্থা, পাবনা; আলেয়া ইয়াসমীন, নির্বাহী পরিচালক  উদ্দীপনা মহিলা সমিতি; সুইটি পারভীন, নির্বাহী পরিচালক, রুরুল পভার্টি অ্যালিভিয়েশন অ্যাসোশিয়েশন (রুপা); মোসাঃ জাহানারা বিউটি, নির্বাহী পরিচালক, নিডা সোসাইটি; আফরোজা বেগম, সাধারন সম্পাদক, সচেতন কর্মসহায় সংস্থা; মোসাঃ মনোয়ারা ইয়াসমিন, নির্বাহী পরিচালক, আশার প্রদীপ; মোসাঃ রহিমা বেগম, সভানেত্রী, দুঃস্থ মহিলা কল্যান সমিতি; মোছাঃ নুসরত আকতার, সমন্বয়কারী, চলনবিল দুঃস্থ মহিলা সংস্থা; মো:আবু বকর সিদ্দিক, গ্রাম–তারতা হাপানিয়া, নওগাঁ।