পবিপ্রবি ছাত্রলীগ নেতার সহযোগিতায় বাক-প্রতিবন্ধী ছেলে ফিরে পেলো পরিবার

পবিপ্রবি ছাত্রলীগ নেতার সহযোগিতায় বাক-প্রতিবন্ধী ছেলে ফিরে পেলো পরিবার

পবিপ্রবি প্রতিনিধিঃপটুয়াখালি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংগঠনিক সম্পাদক শুভজ্যোতি চক্রবর্তি ও যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মো নাজমুল হাসান রাজুর সহযোগিতায় বাক প্রতিবন্ধী এক ছেলে নিজ পরিবারের সন্ধান পেলো।

এ প্রসঙ্গে পটুয়াখালি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মো নাজমুল হাসান রাজু বলেন, গতকাল আমি বিশ্ববিদ্যালয় মেইন গেটে একটি আগুন্তুক ছেলেকে উদ্দ্যেশ্যহীনভাবে ঘোরাফেরা করতে দেখি। কিছুক্ষন পর ছেলেটি বিশ্ববিদ্যালয়-এর মেইন গেট থেকে পাগলাতে অটোতে চলে যায়। এর মাঝে আমার সন্দেহ হওয়ায় আমি ঐ ছেলেকে নিয়ে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেই। মিনিট ২০ পর ছাত্রলীগের এক বড় ভাই আমাকে ফোন করে ঐ ছেলে সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চায় এবং বলে ছেলেটি গত ২৬ অক্টোবর বাসা থেকে হারিয়ে গেছে।

পরবর্তীতে আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংগঠনিক সম্পাদক শুভজ্যোতি চক্রবর্তীর সাথে ঘটনাটি খুলে বলি। ঘটনা শোনার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা থাকা সত্ত্বেও দুই জনই হল থেকে ঐ ছেলেকে খুজতে বের হই। আল্লহর অশেষ রহমতে পাগলাতে অনেক খোজাখুজির পর খুজে পাই। ঐ ছেলেকে নিয়ে পরে আমরা দুমকী থানায় চলে আসি এবং এ এস আই মো আমিনুল ইসলামের কাছে হস্তান্তর করি। ছেলেটির জন্য কিছু নতুন জামা কাপড় ক্রয় করে থানা হেফাজতেই রেখে আসি। পরের দিন ছেলের বাবা ও কাকা থানায় এসে দুমকী থানার অফিসার ইনচার্জ এর কাছ থেকে উপযুক্ত প্রমান দিয়ে নিয়ে যান।

সাংগঠনিক সম্পাদক শুভজ্যোতি চক্রবর্তী বলেন, “একজন ছাত্রলীগের কর্মী হিসেবে এক অসহায় ছেলেকে তার নিজ পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিতে পেরে আমরা অত্যন্ত খুশি।

উল্লেখ্য বাক প্রতিবন্ধী ছেলেটির নাম মো রবিউল (১৫)। রবিউল বরিশালের বানারিপাড়া উপজেলার মলুহার গ্রামের ৮ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মো রফিকুল ইসলাম ও মোছা আমেনা খাতুনের সন্তান। আদরের সন্তানকে ফিরে পেয়ে আবেগ আপ্লূত হয়ে পড়েন মো রফিকুল ইসলাম। তিনি সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

wso shell Indoxploit shell fopo decode hızlı seo googlede üst sıraya çıkmak seo analiz seo nasıl yapılır iç seo nasıl yapılır evden eve nakliyat halı yıkama bmw yedek parça hacklink panel bypass shell hacklink böcek ilaçlama paykasa fiyatları hacklink Google