Tuesday, 22 May 2018

 

নওগাঁয় আখেরি মোনাজাতের মধ্যেদিয়ে শেষ হলো আঞ্চলিক বিশ্ব ইজতেমা

কাজী কামাল হোসেন,নওগাঁ:নওগাঁয় তিনদিন ব্যাপী আঞ্চলিক বিশ্ব ইজতেমা গতকাল শনিবার আখেরি মুনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে। দ্বিতীয় দিন শুক্রবার জুমার দিন থেকে ছিল লাখো মুসল্লির ঢল। শহরের বাইপাস সান্তাহার সংলগ্ন দোগাছী মাঠে বৃহস্পতিবার ফজর থেকে আমবয়ানের মধ্য দিয়ে ইজতেমা শুরু হয়। তিনদিন ব্যাপী এ ইজতেমায় ঢাকার কাকরাইল থেকে আসা ঈমামরা বয়ান করেছেন।

জেলার ১১টি উপজেলাসহ আশপাশের বগুড়া, জয়পুরহাট, নাটোর, রাজশাহী, চাপাইনবাবগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা সমবেত হয়েছিলেন ইজতেমায়। ঢাকার টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমা হওয়ায় অর্থ ও সময়ের অভাবে অনেকের সৌভাগ্য হয়না সেখানে যাওয়ার। নওগাঁয় দ্বিতীয় আঞ্চলিক বিশ্ব ইজতেমা হওয়ায় নিজ জেলায় ইজতেমায় যোগ দেয়ার সৌভাগ্য হয়েছে অনেকের।

বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর সুখ, শান্তি সমৃদ্ধি ও কল্যাণ কামনা করে আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করেছেন আগত মুসল্লিরা। ইজতেমায় তাবলিগ জামাতের নিবেদিতপ্রাণ কর্মীরা একত্রিত হয়ে পারস্পরিক ভাব ও ধর্মীয় জ্ঞান বিনিময় করেছেন। এরপর সারা বছরের কর্মপন্থা নির্ধারণ করবেন এবং মহান আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে ইসলাম প্রচারের কাজে পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়বেন। ইজতেমায় মুসল্লিদের থাকা, খাওয়া, ওজু, গোসল ও পয়ঃনিষ্কাষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ইজতেমায় আসা হাফেজ আবু রায়হান বলেন, শুরু থেকে ইজতেমায় অবস্থান করেছি। জেলাতে ইজতেমা হওয়ায় আমরা খুবই খুশি। শীতের ঠান্ডা, টাকা ও সময়ের অভাবে অনেকে ঢাকায় বিশ্ব ইজতেমায় যেতে পারেনা। যাদের জমিতে ইজতেমা অনুষ্ঠিত হচ্ছে আল্লাহ তাদের উপর জাযাখারের করবেন।    

নওগাঁ পৌরসভা মেয়র নজমুল হক সনি বলেন, অত্যন্ত শান্তিপূর্ন, সুন্দর ও স্বতস্ফূর্ত ভাবে ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পৌরসভা থেকে ইজতেমার ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার পরিচ্ছিনতার জন্য সকাল এবং বিকেল দুটি ট্রাকের ব্যবস্থা ছাড়াও মুসল্লিদের রাস্তায় চলাচলের জন্য লাইটিংয়ের ব্যবস্থা করা ছিল।

নওগাঁ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তরিকুল ইসলাম বলেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পুলিশ প্রশাসন থেকে সিসিটিভি ক্যামেরাসহ বিভিন্ন নিরাপত্তার ব্যবস্থা গ্রহণ করার ফলেত কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

ইজতেমা সবার জন্য কল্যাণ বয়ে আনুক এবং মানুষের ভেতর থেকে হিংসা-হানাহানি দূর করে পৃথিবীতে শান্তির অমিয়ধারা প্রবাহিত করবে, এটাই সবার প্রত্যাশা।