Friday, 24 November 2017

 

তাকওয়া মানুষকে পাপ থেকে দূরে রাখে

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম,ইসলামিক ডেস্ক:তাকওয়াই মানুষকে পাপ থেকে দূরে রাখে। আর আমরা আজ কোথায়? তাই সুন্দর সমাজ, সুদ-ঘুষ, জিনা-ব্যাভিচার মুক্ত সমাজ পেতে চাইলে আমাদের তাকওয়া অবলম্বন করতে হবে। আর আল্লাহর কাছে তারাই অধিক প্রিয় ,যারা অধিক তাকওয়াবান,হোক সে রিক্সাচালক,শ্রমিক-মজুর কিংবা ধনী। কারণ আল্লাহ তা’আলা ইরশাদ করেছেন- إِنَّ أَكْرَمَكُمْ عِنْدَ اللَّهِ أَتْقَاكُمْ

শাওয়াল মাসের ছয়টি রোজার ফজিলত

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম,ইসলামিক ডেস্ক:শাওয়াল আরবি হিজরী বর্ষের দশম মাস। এ মাসের মর্যাদাও অত্যধিক। এ মাসে মুমিন বান্দাগণ রমজানের রোজা রাখার পর-পরই শাওয়াল মাসে ছয়টি রোজা পালন করে থাকেন। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এ মাসে ছয়টি রোজা রাখার জন্য তাগিদ দিয়েছেন। শাওয়াল মাসে এ রোজাগুলি পালন করলে অত্যাধিক ফজিলত পাওয়া যায়।

শাওয়াল মাসের রোজার ফজিলতের ব্যাপারে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন- ‘যে ব্যক্তি রমজানের রোজা রাখার পর-পরই শাওয়াল মাসে ছয়টি রোজা পালন করে সে ব্যক্তির পূর্ণ বৎসরের রোজা রাখার সমতুল্য ছাওয়াব লাভ হয়। (মুসলিম, তিরমিজি, নাসাঈ, ইবনে মাজাহ, আবু দাউদ)

শাওয়ালের রোজার উপকারিতা-
এ রোজা ফরজ নামাজের পর সুন্নাতে মুআক্কাদার মতো। যা ফরজ নামাজের উপকারিতা ও তার অসম্পূর্ণতাকে পরিপূর্ণ করে। অনুরূপভাবে শাওয়াল মাসের ৬ রোজা রমজানের ফরজ রোজার অসম্পূর্ণতা সম্পূর্ণ করে এবং তাতে কোনো ত্রুটি ঘটে থাকলে তা দূর করে থাকে। সে অসম্পূর্ণতা ও ত্রুটি কথা রোজাদার জানতে পারুক আর নাই পারুক।

তাছাড়া রমজানের ফরজ রোজা পালনের পরপর পুনরায় রোজা রাখার মানেই হল রমজানের রোজা কবুল হওয়ার একটি লক্ষণ। যেহেতু মহান আল্লাহ কোনো বান্দার নেক আমল কবুল করেন, তখন তার পরেই তাকে আরও নেক আমল করার তাওফিক দান করে থাকেন।

এ ছাড়া শাওয়ালের ছয় রোজা রাখার আরও ফায়দা হচ্ছে- অবহেলার কারণে অথবা গুনাহর কারণে রমজানের রোজার উপর যে নেতিবাচক প্রভাব পড়ে থাকে সেটা পুষিয়ে নেয়া। কেয়ামতের দিন ফরজ আমলের কমতি নফল আমল দিয়ে পূরণ করা হবে।

মহান রাব্বুল আলামিন আমাদের শাওয়াল মাসে এ ৬টি রোজা রাখার তাওফিক দিন-আমিন।

এবছর সর্বনিম্ন ফিতরা ৬৫ টাকা এবং সর্বোচ্চ ১৯৮০ টাকা

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম ইসলামিক ডেস্ক:১৪৩৮ হিজরি সনের সর্ব নিম্ন ফিতরা নির্ধারণ করা হয়েছে জনপ্রতি ৬৫ টাকা এবং সর্বোচ্চ ফিতরা এক হাজার ৯৮০ টাকা। বৃহস্পতিবার সকালে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মুকাররম সভাকক্ষে জাতীয় ফিতরা নির্ধারণ কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম মাওলানা মো. মিজানুর রহমান।

হাজার রাতের চেয়ে পুণ্যময়-লাইলাতুল কদরের রাত্রি

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম, ইসলামিক ডেস্ক:আজ দিবাগত রাতে পবিত্র শবে কদর। মুসলিম উম্মাহ্’র নিকট এ রাত হাজার রাতের চেয়ে পুণ্যময়। শবে কদরে পবিত্র কুরআন নাজিল হয়েছে। মূলত এজন্যই রমজান মাস কিংবা এ রাতের এত গুরুত্ব ও তাৎপর্য। পবিত্র শবে কদর বা লাইলাতুল কদরের রাতে ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ আল্লাহ’র নৈকট্য ও রহমত লাভের আশায় ইবাদত বন্দেগী করে থাকেন। এ রাতে মুসলমানগণ নফল নামাজ আদায়, পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত, জিকির-আসকার, দোয়া, মিলাদ মাহফিল ও আখেরি মোনাজাত করবেন।

পূর্ণাঙ্গ রহমত বরকত মাগফিরাত পেতে রমজানে অনেক কিছু করণীয় রয়েছে

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম, ইসলামিক ডেস্ক:রহমত, বরকত, মাগফিরাতের মাস মাহে রমজান চলছে। রমজান মাস অন্যান্য সাধারণ মাসের মতো নয়। শুধু রোযা রাখালই এই মাসের হক আদায় হয় না। রমজানের পূর্ণাঙ্গ রহমত বরকত মাগফিরাত পেতে আরো অনেক কিছু করণীয় রয়েছে। এ মাসে সকল আদব রক্ষা করে পুরো মাস রোযা রাখা প্রত্যেক মুসলিমের কর্তব্য।