Friday, 21 September 2018

 

আল্লাহ্ রাব্বুল আলামিন মুমিন বান্দাদের বেশি বেশি পরীক্ষা করেন

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম, ইসলামিক ডেস্ক: আল্লাহ যাদেরকে সবচেয়ে বেশি ভালোবাসেন তাদেরকে তিনি বেশি বেশি পরীক্ষা করেন। সকল নবীদের জীবনের দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে তারাই ছিলেন আল্লাহর সব থেকে পছন্দের এবং তারাই সব সময় কষ্টের মধ্যে দিয়ে চলাফেরা ও জীবন-যাপন করতেন। এমনিভাবে আল্লাহ্ রাব্বুল আলামিন তাঁর মুমিন বান্দাদের নানা পরীক্ষার মধ্যে ফেলেন। এসময়  মানুষের উচিত পরীক্ষার সময় আল্লাহর অবাধ্য কিছু না করা। আল্লাহর আদেশগুলো ভালো করে পালন করা। ধৈর্য ধারণ করা। তাহলে আল্লাহপাক অবশ্যই কষ্টগুলোকে দূর করে দেবেন।

ভুলের জন্য ক্ষমা লাভের শ্রেষ্ঠ উপায় হচ্ছে দোয়া

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম, ইসলামিক ডেস্ক:জীবনের চলতি পথে মানুষ প্রতিনিয়তই ভুল করে থাকে। আর এ ভুলের জন্য ক্ষমা লাভের শ্রেষ্ঠ উপায় হচ্ছে দোয়া। এটি বান্দার জন্য স্রষ্টার একটি নেয়ামতও বটে। ইসলাম ধর্মে দোয়া একটি স্বতন্ত্র ইবাদত। মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে মানুষ যত চাইবে আল্লাহ তত দেবেন। কাজেই মুমিন মুসলমানরা মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে দু’হাত তুলে সৎ নিয়তে কিছু চাইলে নিশ্চয়ই সেটি কবুল করবেন।

ধৈর্যের সাথে পরিস্থিতি সামাল দিতে পারলে আল্লাহর সাহায্য অবধারিত

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম, ইসলামিক ডেস্ক:ধৈর্যের সাথে যে কোন পরিস্থিতি সামাল দিতে পারলে এবং ভূমিকা রাখলে আল্লাহর সাহায্য অবধারিত। মহান আল্লাহ নিজেকে ধৈর্যশীল ও পরম সহিষ্ণু হিসেবে পরিচয় প্রদান করেছেন। ধৈর্যের আরবি হলো ছবর। ছবর না থাকার কারণে মানুষ অনাকাঙ্ক্ষিত বহু সমস্যার সম্মুখীন হয়ে পড়ে।

মাতা-পিতার সেবা ‌করতে পারা পরম সৌভাগ্যের বিষয়

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম, ইসলামিক ডেস্ক:ইসলাম মাতা-পিতার সেবা করার বিশেষ তাগিদ দিয়েছে। মাতা-পিতার সেবা করতে পারা মুমিন-মুসলমানদের জন্য পরম সৌভাগ্যের বিষয়। কুরআনে এরশাদ হয়েছে, পিতামাতার সাথে উত্তম আচরণ করবে। তাদের একজন অথবা উভয়েই যদি তোমার কাছে বার্ধক্যে উপনীত হয়, তবে তাদেরকে ‘উফ’ বলো না এবং তাদেরকে ধমক দিও না। আর তাদের সাথে সম্মাজনক কথা বলো। আর তাদের উভয়ের জন্য দয়া পরবশ হয়ে মমতা ও নম্রতার ডানা বিছিয়ে দাও এবং বলো, ‘হে আমার রব, তাদের প্রতি দয়া করুন যেভাবে শৈশবে তারা আমাকে লালন-পালন করেছেন।’’ (সূরা বনি ইসরাইল : ২৩-২৪)

চরিত্র ব্যতীত ঈমান প্রতিফলিত হয় না

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম, ইসলামিক ডেস্ক:ইসলাম হচ্ছে একটি পরিপূর্ণ জীবন পদ্ধতি যা সার্বিকভাবে মুসলমানের ব্যক্তি/পরিবার/সমাজকে  জীবনকে সুন্দর ও সঠিক পথে চলতে সাহায্য করে। নবী কারীম সা. এরশাদ করেছেন, ‘মুমিনদের মধ্যে পরিপূর্ণ ঈমানদার হচ্ছে সে ব্যক্তি, যে তাদের মধ্যে সর্বোত্তম চরিত্রের অধিকারী।’ (আহমাদ, আবু দাউদ, তিরমিযি)। সুতরাং উত্তম চরিত্র হচ্ছে ঈমানের প্রমাণবাহী ও প্রতিফলন। চরিত্র ব্যতীত ঈমান প্রতিফলিত হয় না।