Sunday, 19 November 2017

 

মেধা সম্পন্ন জাতি গড়তে দুধ-ডিম-মাংস অপরিহার্য্য:মৎস্য ও প্রানীসম্পদ মন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:মেধা সম্পন্ন জাতি গড়তে দুধ-ডিম-মাংস অপরিহার্য্য। পোল্ট্রি ও মৎস্য সেক্টর অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জন করলেও দুগ্ধ সেক্টরে দেশ এখনো পিছিয়ে সেজন্য দুধ উৎপাদনে কাজ করতে হবে। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের সেলিব্রেটি হলে এ্যানিমেল হেলথ কোম্পানিজ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আহকাব) এর নবনির্বাচিত কার্যকরী পরিষদের ৭ম অভিষেক অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য ও প্রানীসম্পদ মন্ত্রী এডভোকেট মোহাম্মদ ছায়েদুল হক এমপি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, দেশের আপামর মানুষের প্রানীজ আমিষের চাহিদা পূরণে আহকাব প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কাজ করে চলছে। এটি আরো বেগবান করতে সংশ্লিষ্ট সকলকে একযোগে কাজ করার আহবান জানান তিনি। এসময় তিনি দুধের ঘাটতি মোকাবেলায় তাঁর সরকারের বিশেষ উদ্যোগ ৫% সুদে খামারীদের ঋণ প্রদানের বিষয়টি উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানে এ্যানিমেল হেলথ কোম্পানিজ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আহকাব) এর কার্যক্রম সম্পর্কে সংখিপ্ত বক্তব্য রাখেন আহকাবের বিদায়ী মহাসচিব ডা. এম. নজরুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে দেশের মুক্তিযুদ্ধে বীর শহীদদের প্রতি সম্মান জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। আহকাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও সদ্য সমাপ্ত আহকাব নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যান ডা. এম.এম খান আনুষ্ঠানিকভাবে নব-নির্বাচিত ইসি কমিটি সদস্যদের নাম ঘোষনা করেন।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা.মো: আইনুল হক বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন স্বাধীনতার পর থেকে ডিএলএস প্রাণিসম্পদ সেক্টরে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এখন তারা মাংস রপ্তানীর দিকে আরো জোর দিচ্ছেন। তিনি যুগোপযোগী প্রযুক্তিগুলি ছড়িয়ে দিতে ডিএলএস এর সাথে আরো সক্রিয়ভাবে কাজ করার জন্য আহকাবের প্রতি অনুরোধ জানান। নব-নির্বাচিত আহকাবের কার্য নির্বাহি কমিটি লাইভষ্টকের উন্নয়নে একযোগে কাজ করে যাবে এমনটাই আশা করেন ডা.মো: আইনুল হক।

সম্মানিত অতিথি হিসেবে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, খামারবাড়ি, ঢাকার মহাপরিচালক কৃষিবিদ মো. হামিদুর রহমান বলেন, খাদ্য ও পুষ্টির অন্যতম বৃহৎ সেক্টর হলো লাইভস্টক সেক্টর। এখানে যারা জড়িত সকলেই হলেন দেশের একজন সেলিব্রেটি। আহকাব সংগঠনটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ফোরাম উল্লেখ করে হামিদুর রহমান বলেন, পুষ্টিকর খাদ্য যোগানে দেশ এখনো পিছিয়ে রয়েছে তবে এটির উন্নয়নে যথেষ্ট কাজ করার সুযোগ রয়েছে। কোথায় এগিয়েছে আর কোথায় পিছিয়ে আছে সেগুলি চিহ্নিত করে কাজ শুরুর কথা বলেন ডিএই ডিজি।

লাইভষ্টকের সাথে শস্যের একটি নিবিড় সম্পর্ক উল্লেখ করে ডিএই ডিজি বলেন প্রাণিসম্পদের বিশেষ করে পোলট্রি ফিড তৈরীর প্রধান কাঁচামাল ভূট্টার বানিজ্যিক উৎপাদন শুরু হয় ১৯৯৯ সালে। তখন থেকেই কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এদিকটির দিকে বিশেষ নজর দেয়।ফলশ্রুতিতে দেশে ভূট্টা চাষীরা এখন ৩.৭৫ কোটি হেক্টর জমিতে প্রায় ২৭ লক্ষ মেট্রিক টন ভুট্টা ফলাচ্ছেন যা প্রাণিসম্পদের জন্য আশির্বাদ হিসেবে কাজ করছে। আধুনিক চাষাবাদ ও উন্নত জাতের মাধ্যমে দেশে এখন প্রতি বিঘা জমিতে প্রায় ৩০-৩৫ মন পর্যন্ত ভুট্টার ফলন হচ্ছে। ভুট্টার চাষ এবং এর কাজে আরো গতিশীলতা আনার লক্ষে সরকার গম গবেষণা কেন্দ্রকে এখন গম ও ভুট্রা গবেষনা কেন্দ্রে পরিনত করেছেন বলে অনুষ্ঠানেজানান কৃষিবিদ মো. হামিদুর রহমান।

অনুষ্ঠানে নব-নির্বাচিত কমিটির মহাসচিব ডা.কামরুজ্জামের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করেন বিদায়ী মহাসচিব ডা. এম. নজরুল ইসলাম। এর আগে এ্যানিমেল হেলথ কোম্পানিজ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আহকাব) এর বার্ষিক সাধারন সভা-২০১৬ অনুষ্ঠিত হয়।