Friday, 15 December 2017

 

জাতীয় সবজি মেলা ২০১৭’ উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বাণী

কৃষি ফোকাস ডেস্ক:সবজি চাষে উদ্বুদ্ধকরণ ও পুষ্টিগুণ বিষয়ে সচেতনতা তৈরি করতে রাজধানীর ফার্মগেটস্থ আ.কা.মু গিয়াস উদ্দীন মিল্কী অডিটরিয়াম চত্বরে ০৫ জানুয়ারি থেকে তিনদিন ব্যাপি জাতীয় সবজি মেলা ২০১৭’ শুরু হয়েছে। এ উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন:

“কৃষি মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে ‘জাতীয় সবজি মেলা ২০১৭’ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। এ উপলক্ষে আমি সংশ্লিষ্ট সকলকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। এবারের সবজি মেলার প্রতিপাদ্য ‘সুস্থ্ সবল স্বাস্থ্য চান, বেশি করে সবজি খান’ অত্যন্ত সময়োপযোগী হয়েছে বলে আমি মনে করি।
    
বাংলাদেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ একটি দেশ। দেশের চাহিদা মিটিয়ে খাদ্যশস্য দেশের বাইরে রপ্তানিও করা হচ্ছে। আমাদের সামনে এখন নতুন চ্যালেঞ্জ পুষ্টি নিরাপত্তা অর্জন। পুষ্টি চাহিদা মেটাতে শাকসবজি গুরম্নত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। শাকসবজি ভিটামিন ও খনিজ লবণের প্রয়োজন মিটিয়ে শরীরকে সুস্থ্ রাখে। আমাদের উর্বর মাটি ও আবহাওয়া সবজি চাষের জন্য অত্যন্ত উপযোগী। স্বল্পসময়ে অল্প খরচে সারাবছর আবাদ করা যায় বিধায় শাকসবজি চাষ অত্যন্ত লাভজনক।

আওয়ামী লীগ সরকার সবসময়ই কৃষির উন্নয়নে কাজ করেছে। আমরা কৃষির সার্বিক উন্নয়নে কৃষিবান্ধব নীতি ও বাস্তবমুখী বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি। সার, বীজসহ সকল কৃষি উপকরণের মূল্যহ্রাস, কৃষকদের সহজশর্তে ও স্বল্পসুদে ঋণ সুবিধা প্রদান, ১০ টাকায় ব্যাংক একাউন্ট খোলার সুযোগসহ তাঁদের নগদ সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে।

আমাদের বিজ্ঞানীরা বছরব্যাপী আবাদ উপযোগী শাকসবজির জাত উদ্ভাবন করেছেন। আমরা আরও উন্নত ও উচ্চ ফলনশীল শাকসবজির জাত উদ্ভাবনে কাজ করে যাচ্ছি। এসকল পদক্ষেপের ফলে সাম্প্রতিক সময়ে শাকসবজিসহ সকল কৃষি উৎপাদনে আমরা ব্যাপক সাফল্য অর্জন করেছি। উন্নয়নের এই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত, পুষ্টিসমৃদ্ধ, মেধাবী জাতি গঠনে আমাদের এ প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে।

আমি আশা করি, ‘জাতীয় সবজি মেলা ২০১৭’ শাকসবজি ও পুষ্টির বিষয়ে জনসচেতনতা সৃষ্টি করে সুস্থ্ জাতি গঠনে ভূমিকা রাখবে।

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু
বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”

--পিআইডি’র সৌজন্যে