Monday, 18 December 2017

 

রাজশাহীতে খামার ব্যবস্থাপনা এবং বাংলাদেশে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা’র নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনা শীর্ষক আঞ্চলিক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

কৃষি ফোকাস ডেস্ক:জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন এলাকার আবহাওয়া উষ্ণ হয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশে গত কয়েক বছরে ঋতু চক্রের ব্যাপক পরিবর্তন লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এর ফলে খামারে রোগ ব্যাধির সংক্রমণ দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা রোগের  ব্যাপক প্রাদুর্ভাব এদের মধ্যে অন্যতম। এই সকল সমস্যা হতে রক্ষা পাওয়ার জন্য পোল্ট্রি খামারীদের আরো সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান বক্তারা।

শনিবার ২১ জানুয়ারি  ওয়ার্ল্ড পোল্ট্রি সায়েন্স এসোসিয়েশন-বাংলাদেশ শাখার আয়োজনে এবং বাংলাদেশ লাইভস্টক সোসাইটি ও রাজশাহী পোল্ট্রি এসোসিয়েশন এর সহযোগিতায় সকালে শুরু হওয়া দিনব্যাপী এক কর্মশালায় রাজশাহী নগরীর সিটি কনভেনশন সেন্টারের মিলনায়তনে মৌসুমী খামার ব্যবস্থাপনা এবং বাংলাদেশে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা ও এর নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনা শীর্ষক আলোচনায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

বক্তারা আরো বলেন, সময়মত টিকা এবং জীবনিরাপত্তা ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে এই সকল রোগ নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব। গত কয়েক বছরে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা রোগের ব্যাপক প্রাদুর্ভাবের ফলে দেশের পোল্ট্রি শিল্প প্রায় ধ্বংসের মুখোমুখি এসে পৌঁছেছে। তাছাড়া পোল্ট্রি খাদ্যের মূল্য অত্যধিক বৃদ্ধি পাওয়ায় খামারীরা ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন। একই সাথে গত এক বছর ধরে ব্রয়লার মুরগি, ডিম এবং বাচ্চার  বাজার খুবই  অস্থিতিশীল। ফলে খামারিরা এই শিল্পে বিনিয়োগে আস্থা হারাচ্ছেন। বেশ কিছু খামার এরই মধ্যে বন্ধ হয়ে গেছে।

ওয়ার্ল্ড পোল্ট্রি সায়েন্স এসোসিয়েশন-বাংলাদেশ এর সভাপতি শামসুল আরেফিন খালেদ এর সভাপতিত্বে কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন ওয়ার্ল্ড পোল্ট্রি সায়েন্স এসোসিয়েশন-বাংলাদেশ এর সাধারণ সম্পাদক মো. সিরাজুল হক।

স্বাগত বক্তব্য শেষে মৌসুমী খামার ব্যবস্থাপনা শীর্ষক আলোচনায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পোল্ট্রি বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. সুবাস চন্দ্র দাস এবং বাংলাদেশে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা ও এর নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনা শীর্ষক আলোচনায় মূল বিষয় তুলে ধরেন, বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইন্সটিটিউট এর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. গিয়াস উদ্দিন।

এছাড়াও কর্মশালায় বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. এম. খালেকুজ্জামান, রাবি ভেটেরিনারী এন্ড এনিমেল সায়েন্সেস বিভাগের প্রফেসর ড. মো. জালাল উদ্দিন সরদার, ওয়ার্ল্ড পোল্ট্রি সায়েন্স এসোসিয়েশন এর সিনিয়র সহসভাপতি আবু লুৎফে ফজলে রহিম খান, ওয়ার্ল্ড পোল্ট্রি সায়েন্স এসোসিয়েশন এর নিবার্হী সদস্য প্রফেসর ড. মো. গিয়াস উদ্দিন, রাবি ভেটেরিনারী এন্ড এনিমেল সায়েন্সেস বিভাগের সভাপতি ড. খন্দকার মো. মোজাফফর হোসেন, বাংলাদেশ লাইভস্টক সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক ডা. হেমায়েতুল ইসলাম আরিফ, রাজশাহী পোলট্রি এসোসিয়েশন এর সভাপতি মো. মাসুদুল হক নীলু এবং সম্পাদক মো. এনামুল হক প্রমূখ।

কর্মশালায় জানা যায়, এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা রোগে এই অঞ্চলের মুরগির খামারের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। ফলে খামারীরা নতুন খামার স্থাপনে আর তেমন উৎসাহ দেখাচ্ছেন না এবং একই সাথে পুরাতন খামারগুলিও একের পর এক বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। তারা আরো বলেন, অপরিকল্পিতভাবে যত্রতত্র খামার স্থাপন, খামারের অবকাঠামোগত ত্রুটি, রোগ ও এর প্রতিরোধ সম্পর্কে বাস্তব জ্ঞানের অভাব, অবৈজ্ঞানিকভাবে টিকা প্রদান, নিম্নমানের খাদ্য প্রদান,সর্বোপরি জৈবনিরাপত্তা সম্পর্কে প্রকৃত জ্ঞানের অভাবের ফলেও এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা রোগের উদ্ভব হতে পারে।

আজকে এই শিল্পকে কৃষিখাতের উপখাত হিসাবে নয়, এটাকে আলাদা খাত হিসাবে প্রাণিজ আমিষের প্রধান উৎস বিবেচনায় নিয়ে এই পোল্ট্রি শিল্পকে টিকিয়ে রাখতে, সামাজিক অর্থনৈতিক অবস্থান, ভৌগলিক অবস্থান, সীমিত আয়তনের দেশে বিশাল জনগোষ্ঠীর পুষ্টির চাহিদা মাথায় রেখে নিজস্ব চিন্তা চেতনা, গবেষণার দ্বারা সমস্যা সমাধানের উপায় খুঁজে বের করার উপরও তাগিদ দেন বক্তারা।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি