Wednesday, 22 November 2017

 

“বাংলাদেশ ম্যানগ্রোভ পোল্ডারস ফর একুয়াটিক প্রডাক্টিভিটি প্রজেক্ট” শীর্ষক প্রকল্পের উদ্বোধন

কৃষি ফোকাস ডেস্ক:২৪ শে অক্টোবর, ২০১৭ তারিখ রোজ মঙ্গলবার, বিকেল ০৫:০০টায় , আমারি হোটেল, ইডেন গ্র্যান্ড বল রুম, গুলশান-২, ঢাকায়, সলিডারিডাড নেটওয়ার্ক, ওয়াগেনিংগেন ইউনিভারসিটি ও রিসার্চ সেন্টার, নেদারল্যান্ড ও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ উদ্যোগে "বাংলাদেশ ম্যানগ্রোভ পোল্ডার্স ফর শ্রিম্প অ্যাকুয়াটিক প্রোডাক্টিভিটি” শীর্ষক প্রকল্পের উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রতিমন্ত্রী, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়, মি: নারায়ন চন্দ্র চন্দ, এম.পি, বিশেষ অতিথি হিসাবে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জনাব সৈয়দ আরিফ আজাদ, ও মি: জেরোইন স্টেগস, ডেপুটি হেড অফ মিশন এবং হেড অফ ইকোনমিক অ্যাফেয়ার অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট কোঅপারেশন, দ্য এমব্যাসি অফ দি কিংডম অফ দ্য নেদারল্যান্ডস উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সলিডারিডাড, বাংলাদেশ এর কান্ট্রি ম্যানেজার জনাব সেলিম রেজা হাসান। এছাড়া উক্ত অনুষ্ঠানে সরকারী বিভিন্ন দপ্তরের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা, প্রাইভেট সেক্টর প্রতিনিধিবৃন্দ, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, গবেষণা প্রতিষ্ঠান, সাংবাদিক এবং নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অধ্যাপক ড: নাজমুল আহসান, এফএমআরটি ডিসিপ্লিন, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় এবং ড: ডলফি ডেবরট ওয়াগেনিংগেন ইউনিভারসিটি ও রিসার্চ সেন্টার, নেদারল্যান্ড ম্যানগ্রোভ পোল্ডার্স গবেষণা প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে উদ্ভাবনী ভূমি ব্যবহার, পানি ব্যবস্থাপনা এবং পোল্ডার্স খালে ম্যানগ্রোভ বৃক্ষ রোপণের মাধ্যমে কিভাবে চিংড়ির উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি হবে তার সংক্ষিপ্ত বর্ণনা উপস্থাপন করেন। তাঁরা জানান, এই গবেষণা প্রকল্পটি সুনির্দিষ্ট প্রমাণ সহ দেখাতে সক্ষম হবে যে ম্যানগ্রোভ ইকোসিষ্টেম উন্নয়নের মাধ্যমে কিভাবে পানির গুনাগুণ উন্নয়ন, কার্বন সিকোয়েন্স, জলজ প্রাণীদের প্রজনন অনুকূল আবাসস্থল সংরক্ষণ, পলি ব্যবস্থাপনা, এবং উপকূলীয় এলাকা সংরক্ষণ করা যায়।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি মি: নারায়ণ চন্দ্র চন্দ বলেন গণ-প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কৃষি উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির জন্য গবেষনা ও তার ফলাফল প্রয়োগের উপর গুরুত্ব আরোপ করেছে। তিনি বহুমাত্রিক এবং স্থায়ীত্বশীল কৃষি উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সমন্বিত এবং পাবলিক-প্রাইভেট অংশীদারিত্ব মূলক যৌথ উদ্যোগ প্রতিষ্ঠার উপর জোর প্রদান করেন। এরূপ একটি উদ্ভাবনী প্রকল্প বাস্তবায়নে সহযোগিতার জন্য তিনি নেদারল্যান্ডস সরকারের বৈদেশিক মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ জানান এবং সলিডারিডাড নেটওয়ার্ক, ওয়াগেনিংগেন ইউনিভারসিটি ও রিসার্চ সেন্টার, নেদারল্যান্ড ও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ উদ্যোগে পরিচালিত "বাংলাদেশ ম্যানগ্রোভ পোল্ডার্স ফর শ্রিম্প অ্যাকুয়াটিক প্রোডাক্টিভিটি” গবেষণা প্রকল্পটি ম্যানগ্রোভ এলাকায় সৃষ্টিশীল ভূমি ব্যবহার মডেল উদ্ভাবনে সক্ষম হবে এবং উদ্ভাবনী কৃষি কার্যক্রম বৃদ্ধি পাবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

বিশেষ অতিথি জনাব সৈয়দ আরিফ আজাদ উল্লেখ করেন যে, বাংলাদেশে প্রায় অর্গানিক পদ্ধতিতে চিংড়ি চাষ করা হয় এবং ইউরোপীয়ান বাজারে আমাদের দেশের চিংড়ির ব্রান্ডিং ও প্রমোশনে অত্র গবেষণা প্রকল্পটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। তিনি আশা প্রকাশ করেন যে, গবেষণায় প্রাপ্ত ফলাফল ও প্রমাণ বাস্তব প্রয়োগের মাধ্যমে চিংড়ি চাষ সহ অন্যান্য কৃষি উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখবে।

বিশেষ অতিথি অরুন স্টীগস আশা প্রকাশ করেন অত্র গবেষনাটি উপকূলীয় এলাকায় সৃষ্টিশীল ভূমি ব্যবহার ও পানি ব্যবস্থাপনা করে আধুনিক চিংড়ি চাষ পরিকল্পনা এবং ব্যবস্থাপনায় কার্যকর হবে।

অনুষ্ঠানের সভাপতি জনাব সেলিম রেজা হাসান উপস্থিত সকলকে প্রোগ্রামে সতস্ফূর্ত অংশগ্রহণের জন্য ধন্যবাদ জানান। তিনি আন্তর্জাতিক বাজারে বাগদা চিংড়ির বিশেষ অবস্থান তৈরীর বিষয়ে সলিডারিডাড এর ভূমিকা উল্লেখ করেন। আন্তর্জাতিক বাজারে বাগদা চিংড়ির বিশেষ অবস্থান তৈরীর নিমিত্তে চিংড়ি চাষের পদ্ধতি পরিবর্তন ও আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত উত্তম চাষ পদ্ধতি অনুশীলনের বিষয়ে গুরুত্ব আরোপ করেন। তিনি বলেন বাস্তবভিত্তিক পরিবেশ বান্ধব চিংড়িচাষ উপকূলীয় এলাকার জীব-বৈচিত্র্য এবং উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে।-সংবাদ বিজ্ঞপ্তি