Sunday, 23 September 2018

 

দেশের প্রথম স্পেশালাইজড সরকারি মাছের বাজার চালু

কৃষি ফোকাস ডেস্ক:বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএফডিসি) কর্তৃক গত ২৮ ডিসেম্বর যাত্রাবাড়ীতে নির্মিত দেশের প্রথম স্পেশালাইজড সরকারি মাছের বাজার আনুষ্ঠানিকভাবে চালু হয়েছে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এর উদ্বোধন করেন। বিএফডিসির চেয়ারম্যান দিলদার আহমদের সভাপতিত্বে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাবিবুর রহমান মোল্লা এমপি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ সচিব মোঃ মাকসুদুল হাসান খান।

‘ঢাকা মহানগরে মৎস্য বিপণন সুবিধাদি স্থাপন প্রকল্প’ এর আওতায় নির্মিত ঢাকা মহানগর মৎস্য বিপণন সুধিধাকেন্দ্র নামক ৬ তলাবিশিষ্ট এই মাছের বাজারে মাছ ব্যবসায়ীদের সুবিধার্থে ৬১টি আড়ৎঘর, ৬১টি গদিঘর ও ৬১টি থাকার ঘর বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে। উক্ত প্রকল্পের আওতায় বিএফডিসি সড়ক ও জনপথ বিভাগের অব্যবহƒত ১৫ শতক জমি ক্রয় করে এই মৎস্যবাজার নির্মাণ করে। আর্থিক লেনদেনের সুবিধার্থে ভবনে একটি ব্যাংক ও একটি খাবার হোটেলও স্থাপন করা রয়েছে।

বর্তমান ঢাকা শহরের অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে মৎস্য অবতরণ, বাজারজাতকরণ ও বিপণন পদ্ধতির আধুনিকায়নই এই প্রকল্পের উদ্দেশ। কেন্দ্রটিতে স্বাস্থ্যকর পরিবেশে মৎস্য অবতরণ, বাজারজাতকরণ ও বিপণনকার্যক্রম পরিচালনা করা হবে যাতে ঢাকা মহানগরে ফরমালিনমুক্ত মাছসরবরাহ সম্ভবপর হয়।

মৎস্য ব্যবসায়ীদের নিকট থেকে বার্ষিক ৮০ লাখ টাকার ভাড়াবাবদ আয় হবে। অবশিষ্ট আড়ৎঘর ও গদিঘর বরাদ্দ প্রদান করা হলে বার্ষিক ২ কোটি টাকা ভাড়া পাওয়া যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, কেন্দ্রটি ৭ কোটি ৩৯ লাখ টাকা ব্যয়ে বাস্তবান করা হয়েছে।

মেগাসিটি ঢাকাতে আধুনিক মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র না থাকায় খোলা আকাশের নিচে কাদামাটিতে যত্রতত্র নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে মাছ অবতরণ ও বিপণন করা হয়। মাছ অতিপচনশীল দ্রব্য হওয়ায় দ্রুত পচে গুণগতমান নষ্ট হয়ে রাজধানীর পরিবেশ এবং জনস্বাস্থ্য হুমকির সম্মুখীন হয়ে যায়। এই সমস্যা নিরসনকল্পে পরিবেশসম্মত উপায়ে মাছের গুণগতমান বজায় রেখে ঢাকা মহানগরে মৎস্যবিপণন ও মৎস্যব্যবসায়ীদের বিপণন সুবিধাদি নিশ্চিতকরণার্থে বিএফডিসি কর্তৃক ‘ঢাকা মহানগরে মৎস্য বিপণন সুবিধাদি স্থাপন প্রকল্প’টি বাস্তবায়নের পদক্ষেপ নেয়া হয়।-পিআইডি