Thursday, 14 December 2017

 

ঈদুল আজহার জন্য গবাদি পশুর যোগান রয়েছে ১ কোটি ৫ লাখ

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:আসন্ন ঈদুল আজহার জন্য দেশে কোরবানিযোগ্য গবাদি পশুর যোগান রয়েছে ১ কোটি ৫ লাখ। এরমধ্যে গরু-মহিষ প্রায় ৩৩ লাখ এবং ছাগল-ভেড়া হচ্ছে ৭২ লাখ। এছাড়া সারাদেশে মোট গবাদি পশুর সংখ্যা ৪ কোটি ৯০ লাখ। তন্মধ্যে গরু-মহিষ ২ কোটি ৩৫ লাখ এবং ছাগল-ভেড়া ২ কোটি ৫৫ লাখ।

রবিবার মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে আন্তঃমন্ত্রণালয় সমন্বয়সভায় এ তথ্য জানানো হয়।

কোরবানির হাটে সুস্থ-সবল গবাদি পশু সরবরাহ নিশ্চিতকরণ এবং অবৈধ মোটাতাজাকরণ রোধে এবার উপজেলা পর্যন্ত কোরবানির হাটবাজারে আনুমানিক ১ হাজার ভেটেরিনারি মেডিক্যাল টিম থাকবে। গতবছর এই টিমের সংখ্যা ছিল ৪শ’ ৯৪টি। চোরাইপথে আসা মোটাতাজাকরণ ওষুধসহ গবাদি পশুর স্বাস্থ্যপরীক্ষা এবং রোগবালাইরোধে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রণালয়, জেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্টদের নিয়ে সমন্বিত পদক্ষেপ নেয়া হবে। ঈদের আগে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত গরু মোটাতাজাকরণসহ বিভিন্ন ক্ষতিকারক ওষুধ যাতে প্রেসক্রিপশন ব্যতীত বিক্রি না হয় তাও নিশ্চিত করা হবে।   

পাশাপাশি ইসলামি বিধানানুযায়ী কোরবানির অযোগ্য অসুস্থ ও ত্রুটিযুক্ত গবাদি পশু যাতে হাটবাজারে বিক্রয় হতে না পারে, সেজন্য ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে সারাদেশের মসজিদেও গণসচেতনতা সৃষ্টির উদ্যোগ নেয়া হবে।   

মৎস্য সচিব মো. মাকসুদুল হাসান খানের সভাপতিত্বে সভায় বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের প্রতিনিধিগণ অংশগ্রহণ করেন।
      
উল্লেখ্য, গত বছর কোরবানির সময় ৯৬ লাখ ৩৫ হাজার পশু প্রয়োজন হয়েছিল। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ১২ বা ১৩ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের সুমলমানরা কোরবানির ঈদ উদযাপন করবে।