পবিপ্রবিতে দেশের ৩য় আধুনিক ভেটেরিনারি টিচিং হাসপাতাল এর শুভ উদ্বোধন
Friday, 22 September 2017

 

পবিপ্রবিতে দেশের ৩য় আধুনিক ভেটেরিনারি টিচিং হাসপাতাল এর শুভ উদ্বোধন

মো: মুস্তাফিজুর রহমান পাপ্পু,পবিপ্রবি:দেশের ৩য় ভেটেরিনারি টিচিং হাসপাতাল ও ভেটেরিনারি মেডিসিন রিচার্স ল্যাবরেটরি আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু হল পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বহিঃস্থ ক্যাম্পাস বাবুগঞ্জে । উচ্চ শিক্ষা মানোন্নয়ন প্রকল্প (হেকেপ)-এর আওতায় অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি দ্বারা সজ্জিত হলো এই দুইটি গবেষনাগার। আজ ভেটেরিনারি টিচিং হাসপাতাল সূত্রে এ তথ্য পাওয়া যায়।

হাসপাতাল-এর শুভ উদ্ভোধন করেন অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ হারুনর রশীদ এবং ভেটেরিনারি মেডিসিন রিচার্স ল্যাবরেটরি-এর শুভ উদ্ভোধন করেন অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর মোহাম্মদ আলী।

উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানের এক সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ হারুনর রশীদ বলেন ,“বিশ্ববিদ্যালয় হলো জ্ঞান তৈরীর কারখানা, এখান থেকে উদ্ভাবিত জ্ঞান ছাত্র-ছাত্রীর মাধ্যমে চারিদিকে ছড়িয়ে পরবে এবং প্রান্তিক খামারী উপকৃত হবেন”। তিনি আশা প্রকাশ করেন হেকেপ-এর অর্থায়নে অত্র উপ-প্রকল্পে ক্রয়কৃত অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি নতুন নতুন জ্ঞান সৃষ্টিতে সহায়তা করবে এবং অধ্যায়নরত ছাত্র-ছাত্রী উপকৃত হবে।

এক সাক্ষাতকারে অত্র উপ-প্রকল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট ড. দিব্যেন্দু বিশ্বাস বলেন “হেকেপ-এর অর্থায়নে এটি বাংলাদেশের তৃতীয় অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি সজ্জিত ভেটেরিনারি টিচিং হাসপাতাল। এখন পর্যন্ত সম্পূর্ন বিনা খরচে অত্র এলাকার গবাদী প্রানিকে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হচ্ছে। অধ্যায়নরত ছাত্র-ছাত্রীরা বলে নতুন ভেটেরিনারি হাসপাতালের অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি আমাদেরকে আরো অভিজ্ঞ করে তুলবে”।  

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন এনিমেল সায়েন্স এন্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের ডিন প্রফেসর ড.মো: রহুল আমিন,প্রফেসর ড.পূর্ণেন্দু বিশ্বাস,বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষিকামন্ডলী,ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ,কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ সহ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, হেকেপ-এর অর্থায়নে অত্র ভেটেরিনারি টিচিং হাসপাতাল-এ আছে ভ্রাম্যমান ভেটেরিনারি হাসপাতাল, ডিজিটাল এক্স রে মেশিন, আল্ট্রাসনোগ্রাফি মেসিন, অত্যাধুনিক অপারেশন থিয়েটার, প্রানিসমুহের রোগ জীবানু সনাক্তকরনের জন্য অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতিসহ আরো অনেক কিছু। অত্র উপ-প্রকল্পের মেয়াদ ৩০ ডিসেম্বর ২০১৬ ইং তারিখে শেষ হয়।