Monday, 20 November 2017

 

চট্টগ্রামে খামার যান্ত্রিকীকরনের মাধ্যমে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্পেরআঞ্চলিক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

সমকালীন কৃষি ডেস্ক:চট্টগ্রামের অনুষ্ঠিত হলো খামার যান্ত্রিকীকরনের মাধ্যমে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্প ২য় পর্যায় (২য় সংশোধিত) প্রকল্পের আঞ্চলিক কর্মশালা। ১৭ জুন শনিবার আগ্রাবাদস্থ খামারবাড়ী চত্ত্বরে আয়োজিত এ  কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর চট্টগ্রাম অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ মো. রফিকুল ইসলাম।

ডিএই চট্টগ্রাম জেলার উপপরিচালক কৃষিবিদ মো. আমিনুল হক চৌধুরী এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কমর্শালায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম অন্ঞলের আওতাধীন জেলার উপপরিচালকবৃন্দ, উপজেলা কৃষি অফিসার ও কৃষি সম্প্রসারণ অফিসারবৃন্দ; বিএআরআই, বীজ প্রত্যয়ন এজেন্সী, ব্রি এর প্রতিনিধিবৃন্দ  অংশগ্রহন করেন। কর্মশালায় প্রকল্পের সার্বিক কর্মকান্ড তুলে ধরেন প্রকল্পের উপপ্রকল্প পরিচালক জনাব মো. শফিকুল ইসলাম শেখ । বিভিন্ন প্রকার যন্ত্রপাতির মডেল এবং এর মাঠ পর্যায়ে নানা অভিজ্ঞতার কথা উঠে আসে তাঁর বক্তব্যে।

কমর্শালায় চট্টগ্রাম অঞ্চলের প্রকল্পের কার্যক্রম ও নানা সমস্যা নিয়ে প্রাণবন্ত আলোচনা করা হয় এবং এ অঞ্চলের জন্য ভতূর্কীতে বিক্রয়কৃত যন্ত্রের পরিমান বৃদ্ধির অনুরোধ জানানো হয়। নোয়াখালীর সূর্বনচর উপজেলাকে উপকূলীয় উপজেলা হিসেবে অন্তর্ভূক্ত করে ভতূর্কীর পরিমান বৃদ্ধির অনুরোধ জানানো হয়।

প্রধান অতিথি কৃষিবিদ মো. রফিকুল ইসলাম তাঁর বক্তব্যে আবহাওয়ার অস্বাভাবিক আচরনের প্রতি লক্ষ্য রেখে ফসল আবাদে যান্ত্রিকীকরনের জন্য যে সব যন্ত্রপাতি সম্প্রসারণ করা হচ্ছে তাতে স্থানীয় চাহিদা অনুসারে মডিফিকেশনের প্রতি গূরুত্বারোপ করেন। একই সাথে বিতরকৃত যন্ত্রপাতির সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করার জন্য সবার প্রতি অনুরোধ জানান।
-কৃষি তথ্য সার্ভিসের সৌজন্যে