Thursday, 14 December 2017

 

রংপুরে ৩৫ হাজার আলু চাষি মোবাইলে মড়ক রোগের পূর্বাভাস পাবেন

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:Geodata to control late blight fungal disease in Bangladesh (GEOPOTATO) কর্মসূচির আওতায় আলু উৎপাদনে চাষিদের পূর্বাভাস প্রদানের মাধ্যমে আলুর মড়ক (লেট ব্লাইট) রোগ প্রতিরোধ করে কৃষি উপকরণের সুষ্ঠু ব্যবহার ও অধিক ফসল উৎপাদন করা হবে। এ কার্যক্রমে জিআইএস পদ্ধতির সাহায্যে আলুর মড়কের অনুকূল আবহাওয়া স্যাটেলাইট তথ্য তথা জিও ডাটা বিশ্লেষণ করে রোগটির প্রাদুর্ভাবের পূর্বেই কৃষককে পূর্বাভাস প্রদান তথা আগাম তথ্য প্রদানের ফলে কৃষক আলুর মড়ক প্রতিরোধে যথাযথ ব্যবস্থা নিয়ে মূল্যবান ফসল রক্ষা করতে পারবেন।

নেদারল্যান্ডের বিখ্যাত ওয়াগেনিংগন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্ল্যান্ট রিসার্চ ইন্টারন্যাশনাল এই কর্মসূচির লিড এজেন্সি হিসেবে রয়েছে। বাংলাদেশে মুন্সিগঞ্জ ও রংপুর জেলার নির্দিষ্ট আলু চাষিদের কাছে প্রাথমিকভাবে এ সেবাটি প্রদান করা হবে। রংপুরে কৃষি তথ্য সার্ভিসের আঞ্চলিক কার্যালয়ের আইসিটি ল্যাবে গত ১১ অক্টোবর ২০১৭ তারিখে অনুষ্ঠিত দিনব্যাপী Consultation and ToT on GEOPOTATO Project শীর্ষক প্রশিক্ষণ-কর্মশালায় কৃষি বিশেষজ্ঞগণ এসব কথা বলেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কৃষি তথ্য সার্ভিসের আঞ্চলিক বেতার কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মো. আবু সায়েম এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর রংপুর অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ মো. শাহ আলম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর রংপুর জেলার উপপরিচালক কৃষিবিদ স ম আশরাফ আলী। প্রশিক্ষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ওয়াগেনিংগন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্ল্যান্ট রিসার্চ ইন্টারন্যাশনাল এর গবেষক ড. হুইব হেনসটেক, জেন মারি, mPower Social Ltd. পরিচালক হাসিব আহসান, পরামর্শক কৃষিবিদ মো. নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

প্রশিক্ষণার্থী হিসেবে উপস্থিত কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি), আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ বেতার, কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। এ কর্মসূচির আওতায় ০৯৬৭৮৭৭৪৪২২ নম্বরে কল করে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করে খুব সহজেই আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুয়ায়ী করণীয় সম্পর্কিয় তথ্য বাংলায় লিখিত ক্ষুদে বার্তা বা কণ্ঠ বার্তা মৌসুম জুড়ে পেতে থাকবেন একজন আলু চাষি। এতে আলু চাষিগণ মড়ক রোগ প্রতিরোধসহ উচ্চ ফলন নিশ্চিতকরণ এবং একই সাথে উৎপাদন খরচ কমাতে সক্ষম হবেন।

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন আলু চাষিগণ প্রতি বছর মড়ক রোগের কারণে বেশ ক্ষতির সম্মুখিন হয়ে থাকেন। তথ্য-প্রযুক্তি নির্ভর এ ধরণের সেবা চালু হলে আলু চাষিরা মড়ক রোগের কারণে সম্ভাব্য ক্ষতি এরিয়ে যেতে সক্ষম হবেন। বিশেষ অতিথি কৃষিবিদ স ম আশরাফ আলী বলেন রংপুরে সাধারণত জানুয়ারি মাসে মড়ক রোগের প্রাদুর্ভাব সবচেয়ে বেশি দেখা যায়। এ এলাকায় আগাম সতর্ক বার্তা আলু চাষিদের জন্য সুসংবাদ বয়ে আনবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

আঞ্চলিক বেতার কৃষি অফিসার বলেন প্রাথমিক পর্যায়ে রংপুর জেলায় প্রায় ৩৫ হাজার কৃষকের মাঝে এ সেবা দেয়া হবে। তিনি আরও বলেন কৃষি তথ্য সার্ভিসের কৃষি কল সেন্টারের ১৬১২৩ নম্বরের ফোন করেও এ সেবাটি পাওয়া যাবে।