Sunday, 22 April 2018

 

পানের গোড়া/পাতা ও লতা পচাঁ রোগের বিস্তারিত

ড. কে, এম, খালেকুজ্জামান:পানের গোড়া/পাতা ও লতা পচাঁ (Foot/Leaf and vine rot) রোগটি ফাইটোফথোরা প্যারাসাইটিকা (Phytophthora parasitica) নামক ছত্রাকের আক্রমনে হয়ে থাকে। কম ম্যাগনেসিয়াম ও বেশী লবনাক্ত মাটিতে রোগের প্রকোপ বেশী হয়। অবিরত বৃষ্টিপাত হলে এবং আর্দ্র আবহাওয়ায় এ রোগ বিস্তার লাভ করে। রাত্রির তাপমাত্রা ২৩ ডিগ্রি সেঃ বা তার নীচে হলেও রোগের প্রকোপ বাড়ে।

রোগের লক্ষণ:

  • প্রাথমিক অবস্থায় পাতায় পানি ভেজা হলুদাভ বাদামী রংঙের দাগ দেখা যায়।
  • ধীরে ধীরে দাগ বিস্তৃত হয়ে বড় হতে থাকে
  • দাগ পাতার কিনারা হতেও শুরু হতে পারে
  • অবিরত বৃষ্টিপাত স্থলে রোগটি পাতা হতে বোঁটায় এবং লতায় সংক্রমিত হয়
  • আক্রান্ত পাতা ও লতায় এক প্রকার কালো দাগ পড়ে। ঐ দাগের মাঝখানে বিবর্ণ হয়ে পঁচে যায়
  • আক্রান্ত পাতা ঝরে পড়ে; পরে গাছের শিকড়, লতা ও পাতা পঁচে এক প্রকার দুর্গন্ধ নির্গত করে
  • আক্রমণ বেশী হলে গাছ মারা যায়।

রোগের প্রতিকারঃ

  • রোগাক্রান্ত গাছের পাতা তুলে পুড়ে ফেলতে হবে।
  • রোগমুক্ত লতা বীজ হিসেবে ব্যবহার করতে হবে
  • রোগ প্রতিরোধী জাত বারি পান-২ চাষ করতে হবে
  • ঘন ঘন সেচ প্রয়োগ করা থেকে বিরত থাকতে হবে
  • পান গাছসমূহের গোড়ায় মাটি দিয়ে একটু উচু করে রাখতে হবে যেন বৃষ্টি বা সেচের পানি জমে না থাকে
  • ট্রাইকোডার্মা জীবানু সার ৫ গ্রাম হারে প্রতি গাছের গোড়ায় প্রয়োগ করতে হবে
  • বরজে রোগ দেখা দিলে টেবুকোনাজল+ট্রাইফ্লক্সিস্ট্রবিন (যেমন-নাটিভো ৭৫ ডব্লিউ জি) প্রতি লিটার পানিতে ০.৬ গ্রাম হারে অথবা মেটালেক্সিল+মেনকোজেব (যেমন-রিডোমিল গোল্ড প্রতি লিটার পানিতে ২ গ্রাম হারে মিশিয়ে ৭-১০ দিন পর পর গোড়াসহ সমস্ত গাছে ২-৩ বার স্প্রে করতে হবে।

======================================
লেখক:-উর্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা (উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব)
মসলা গবেষণা কেন্দ্র, বিএআরআই
শিবগঞ্জ, বগুড়া।
Mobile No. 01911-762978; 01558-313632; 01673-632486.
E-mail: ;