Saturday, 18 November 2017

 

রাজধানীর ঢাকায় ও কুমিল্লায় এজি ফুডের আরো ৪টি আউটলেট উদ্বোধন

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:দেশের অন্যতম বৃহত্তম কৃষি শিল্প প্রতিষ্ঠান আহ্সান গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান এজি এগ্রো ফুডস লিমিটেড "Your Nutrition Partner" শ্লোগানকে ধারণ করে রাজধানী ঢাকায় আরো তিনটি এবং কুমিল্লায়  ১টি আউটলেট উদ্বোধন করলো।

২৩ অক্টোবর রবিবার রাজধানীর মহাখালীতে ফিতা কেটে এজি ফুডস লি এর আউটলেট উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী

এসময় উপস্থিত ছিলেন আহসান গ্রুপের চেয়ারম্যান মোঃ শহিদুল আহ্সান, এজি এগ্রো ফুডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রেহনুমা আহসান, এজি এগ্রো ফুডের প্রধান নির্বাহি কর্মকর্তা কৃষিবিদ লুৎফর রহমান ও সকল উর্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

কুমিল্লা আউটলেট উদ্বোধন করেন প্রতিষ্ঠানের ব্র্যান্ড এম্বাসেডর ডা.এজাজুল ইসলাম ফ্রাঞ্চাইজি মালিক  সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।    

৩১ অক্টোবর সোমবার উদ্বোধন হয় শান্তিনগর ও মোহাম্মদপুর আউটলেটের, উদ্বোধন করেন এজি এগ্রো ফুডের প্রধান নির্বাহি কর্মকর্তা কৃষিবিদ লুৎফর রহমান। এসময় উপস্থিত ছিলেন মহাব্যবস্থাপক (বিপণন) এ এম এম নুরুল আলম, মহাব্যবস্থাপক (উৎপাদন) জাবেদ হাসান ভুইয়া ও সকল উর্ধতম কর্মকর্তা।

এজি ফুডস্ আউটলেটের উদ্দেশ্য এবং এর কার্যকম সম্পর্কে জানতে চাইলে কোম্পানীর প্রধান নির্বাহি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ লুৎফর রহমান এগ্রিলাইফ২৪ ডটকমকে বলেন, তাদের কোম্পানীর ফুডস্ আউটলেটের উদ্দেশ্য হলো নিরাপদ ও স্বাস্থ্যসম্মত কোয়ালিটি ফুডগুলি সরাসরি ভোক্তাদের নিকট পৌঁছানো।


কৃষিবিদ মোঃ লুৎফর রহমান বলেন, নিজস্ব ফ্যাক্টরীতে বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ইউরোপিয়ান মেশিনে উৎপাদিত এসব পণ্য উৎপাদনের প্রতিটি পর্যায়ে রয়েছে তাদের কোয়ালিটি কন্ট্রোল। আর এসব তত্বাবধান করে থাকেন স্বানামধন্য ফুড এক্সপার্টরা। কাজেই এসব পণ্য ভোক্তারা নিশ্চিন্তে উপভোগ করতে পারবেন।

দেশ এগিয়ে যাচ্ছে এবং এগিয়ে যাবার কারিগরদের প্রয়োজনীয় পুষ্টি সরবরাহের মাধ্যমে তারা ভোক্তাদের "Nutrition Partner" হিসেবে আরো কাছাকাছি আসতে চায় এজি এগ্রো ফুডস্ লি: বলে জানালেন কৃষিবিদ মোঃ লুৎফর রহমান।

প্রসঙ্গত, এ আউটলেট কয়টি যাত্রা শুরুর মধ্যে দিয়ে বর্তমানে এজি এগ্রো ফুডস এর মোট আইলেটের সংখ্যা হলো ১১টি। দেশের প্রাণিসম্পদ খাতের অন্যতম উপখাত হিসেবে পোলট্রি শিল্পের মাধ্যমে প্রাণিজ আমিষের চাহিদা পূরণে আহ্সান গ্রুপ তথা এজি এগ্রো ফুডস লিমিটেডের এ ধরনের উদ্যোগ প্রশংসনীয় বলে মনে করেন ভোক্তারা।