Monday, 20 November 2017

 

ঝিনাইদহে জিংক ধান চাষের উপর কৃষক প্রশিক্ষণ

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম, ডেস্ক:৩০ ও ৩১ জুলাই, ২০১৭ রবি ও সোমবার  উন্নয়ন ধারা, ঝিনাইদহ এর প্রশিক্ষণ কক্ষে ২ টি ব্যাচে দিনব্যাপী জিংক ধানের বৈশিষ্ট্য ও জিংকের উপকারিতা বিষয়ক কৃষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। হারভেস্ট প্লাস বাংলাদেশের “ডেলিভারি অব হাই জিংক রাইস ইন বাংলাদেশ” প্রকল্পের সহযোগি সংস্থা হিসেবে স্থানীয় বেসরকারি সংস্থা উন্নয়ন ধারা এই প্রশিক্ষণের আয়োজন করে।

উক্ত প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষক হিসেবে উপস্থিত  ছিলেন ঝিনাইদহ জেলার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক এবং সদর উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা জনাব ড. খান মোঃ মনিরুজ্জামান, শৈলকুপা উপজেলার কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা জনাব মো: হাসান আলী, হারভেস্টপ্লাস বাংলাদেশের এগ্রিকালচালচারাল রিসার্চ এন্ড ডেভলপমেন্ট অফিসার জনাব মো: মজিবর রহমান, উন্নয়ন ধারার প্রতিষ্ঠতা জনাব তালিব বাশার নয়ন, নির্বাহী পরিচালক কৃষিবিদ মোঃ শহীদুল ইসলাম, কৃষিবিদ মোঃ রুবেল আলী এবং হারভেস্টপ্লাস প্রকল্প সমন্বয়কারী কৃষিবিদ প্রফুল্ল কুমার সরকার।

প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কৃষিবিদ কৃষ্ণ দাস সাহা এবং সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন হারভেস্টপ্লাস প্রকল্পের ডাটা ম্যানেজমেন্ট অফিসার তানভীর আহম্মদ রনি। ঝিনাইদহ জেলার সদর, কালীগঞ্জ ও শৈলকুপা  উপজেলার ৭ টি ইউনিয়নের ১৭ টি গ্রামের ৫০ জন কৃষককে  জিংক সমৃদ্ধ ব্রি ধান৭২ ও ব্রি ধান৬২ জাতের ধান চাষের উপর উক্ত প্রশিক্ষন দেওয়া হয় এবং মানব দেহে জিংকের গুরুত্ব, জিংকের অভাব জনিত সমস্যাবলী ও তার সমাধান, জিংকের উৎস হিসাবে জিংক ধানের ভুমিকা এবং এর উৎপাদন কলাকৌশল নিয়ে বিষদ আলোচনা করা হয়।

প্রশিক্ষণে প্রদর্শণী কৃষকদের মাঝে জিংক ধানের ফ্যাক্টশীট, মানবদেহে জিংকের প্রয়োজনীয়তা বিষয়ক লিফলেট, জিংক ধানের শ্লোগান সম্বলিত টিশার্ট প্রভৃতি প্রদান করা হয়। জিংকের অভাব জনিত অপুষ্টি লাঘবে বর্তমানে দেশে প্রচলিত অন্যান্য কার্যক্রমের সহযোগি কার্যক্রম হিসেবে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট কর্তৃক উদ্ভাবিত জিংক সম্মৃদ্ধ ব্রিধানের ব্যবহার একটি কার্যকর এবং টেকসই পন্থা হিসেবে কাজ করবে বলে উপস্থিত সকলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।-“প্রেস বিজ্ঞপ্তি”