Thursday, 14 December 2017

 

প্রান্তিক পর্যায়ের খামারীদের সমস্যাগুলির বিজ্ঞানভিত্তিক সমাধানে কাজ করতে চান-ডা. রহমান

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:দেশের শ্রমঘন শিল্প হিসেবে তৈরি পোষাকের পরেই পোলট্রি শিল্পের অবস্থান। মাঠ পর্যায়ে কর্মসংস্থানে এর গুরুত্ব অনস্বীকার্য। তবে প্রান্তিক পর্যায়ে নানাবিধ সমস্যার কারণে লোকসানে বেকার হয়ে পড়ে অনেকেই যার প্রভাব পড়ে পরিবার, সমাজ থেকে রাষ্ট্র পর্যন্ত। তৃণমূল পর্যায়ে পোলট্রি খামারীদের নিকট অত্যন্ত পরিচিত মুখ নবীন ভেটেরিনারিয়ান ডা. আ.ন.ম আব্দুর রহমান এভাবেই মাঠ পর্যায়ের অভিজ্ঞতার অনুভূতি জানালেন।

বয়সে নবীন হলেও মাঠ পর্যায়ে কর্মে অত্যন্ত অভিজ্ঞ সেইফ বায়ো প্রোডাক্টস এর সেলস ম্যানেজার ডা. আ.ন.ম আব্দুর রহমান বলেন ছোট-বড় সব খামারীরা এদেশের পোলট্রি শিল্পে অবদান রাখছে। তাদের সমস্যাগুলি শোনার জন্য ওয়ার্ল্ডস্ পোল্ট্রি সায়েন্স এসোসিয়েশন-বাংলাদেশ (ওয়াপসা-বিবি) কে আরো এগিয়ে আসা প্রয়োজন। অনেক সময় তাদের সামর্থ্য থাকলেও অত্যাধুনিক কারিগরী জ্ঞানের অভাবে তারা আধুনিক প্রযুক্তিগুলি রপ্ত করতে পারেন না। ফলে তারা আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হন। খুব কাছ থেকে দেখা অভিজ্ঞ ডা. রহমান এসব নিয়ে নিজেকে আরো নিয়োজিত রাখতে চান বলে এগ্রিলাইফ২৪ ডটকমকে জানান।

সকলের সহযোগীতায় পোলট্রি ইন্ডাস্ট্রির তৃণমূল পর্যায়ের সমস্যাগুলির বিজ্ঞানভিত্তিক সমাধান করে খামারীদের সেবা দিতে পারলে নিজেকে অত্যন্ত সৌভাগ্যবান বলে মনে করবেন তিনি।। আর এ কাজে দেশের শিক্ষক থেকে শুরু করে, পোলট্রি বিজ্ঞানি, গবেষক, ব্যবসায়ী, ভেটেরিনারিয়ান, নিউট্রিশনিষ্ট সকলকে কাছে পেতে চান ডা. রহমান। এ লক্ষে কাজ করে চলেছেন তিনি।

আসন্ন ওয়ার্ল্ডস্ পোল্ট্রি সায়েন্স এসোসিয়েশন-বাংলাদেশ (ওয়াপসা-বিবি)'র নির্বাহি পরিষেদের নির্বাচনে সদস্য পদে ভেটেরিনারী ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে তিনি একজন প্রার্থী। নির্বাচনে তার ভোটার নং-(৬৫৮)। WPSA-BB' র সকল সম্মানিত সদস্যদের নিকট আন্তরিক দোয়া, সহযোগিতা ও ভোট কামনা করেছেন ডা. আ.ন.ম আব্দুর রহমান।