Sunday, 23 July 2017

 

বাকৃবিতে মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদে সিপির রিক্রুটমেন্ট অনুষ্ঠিত

আবুল বাশার মিরাজ, বাকৃবি প্রতিনিধি:বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের(বাকৃবি)মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষার্থীদের সাথে থাইল্যান্ড ভিত্তিক বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সিপি বাংলাদেশ ক্যাম্পাস রিক্রুটমেন্ট অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের আয়োজনে সিপি বাংলাদেশের সহায়তায় বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের কনফারেন্স কক্ষে ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সুভাষ চন্দ্র চক্রবর্তীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিপি বাংলাদেশ এর কনসালটেন্ট ড. মো. আবদুল বাকি, মানবসম্পদ বিভাগের পরিচালক মো. কামরুজ্জামান, মানবসম্পদ বিভাগের রিক্রুটম্যানট অফিসার এএসএম সায়েম ও তরঙ্গ কার্জিটন রোজিরিও।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন সিপি বাংলাদেশ এর কনসালটেন্  ড. মো. আবদুল বাকি। এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ফিশারিজ টেকনোলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. একেএম নওশাদ আলম, একোয়াকালচার বিভাগের প্রধান ড.এমএ সালাম। এসময় মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের বিভিন্ন বিভাগের সিনিয়র শিক্ষক, অনুষদীয় শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ক্যাম্পাস রিক্রুটমেন্ট এর উপর তথ্যবহুল প্রেজেনট্রেশন দেন মানবসম্পদ বিভাগের পরিচালক মো. কামরুজ্জামান। পরে শিক্ষার্থীদের সাক্ষাৎকার ও তাদের কাছ থেকে জীবন বৃত্তান্ত সংগ্রহ করা হয়।

সিপি বাংলাদেশ এর বাকৃবির পশুপালন অনুষদ ও ভেটেরিনারি অনুষদের সাথে সিপি বাংলাদেশ যৌথভাবে কাজ করলেও মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের সাথে এই প্রথম উদ্যোগ। এ বিষয়ে বাকৃবির অধ্যাপকরা বলেন, সিপি বাংলাদেশের সাথে এটা আমাদের প্রথম অভিজ্ঞতা। তাদের এ উদ্যোগে আমাদের ফিশারীজ গ্রাজুয়েটরা উপকৃত হবে। শিক্ষার্থীদের আরো দক্ষ করে তুলতে সিপির বিভিন্ন ফার্মে পরিদর্শনের সুযোগ ও ইন্টার্নশীপের সুযোগ দিলে এটি আরো কার্যকর হবে।

এ বিষয়ে সিপি বাংলাদেশ এর  মানবসম্পদ বিভাগের পরিচালক মো. কামরুজ্জামান বলেন, আমরা মৎস্য সেক্টরে এখন গুরুত্ব দিচ্ছি। আমাদের এখানে মোট ১২০৭ জন কর্মকর্তা রয়েছে যার মধ্যে ১১৫জন কৃষিবিদ তার অধিকাংশ ১০৭জনই বাকৃবির গ্রাজুয়েট। আমরা বাকৃবির মতো দক্ষ গ্রাজুয়েটদের সবর্দাই চাই। আমরা মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের সাথে সুসম্পর্ক বজায় রাখা এবং এখনকার শিক্ষার্থীদের ফার্ম পরিদর্শন ও ইন্টার্নশীপের ব্যাপারে আমরা আগ্রহী।