Friday, 24 November 2017

 

আমদানিকৃত পিঁয়াজ দ্রুত খালাসে বাণিজ্যমন্ত্রীর নির্দেশ

ব্যবসা বাণিজ্য ডেস্কঃবাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, আসন্ন ঈদ-উল আযহাকে সামনে রেখে পিঁয়াজ, লবণ, আদা, রসুনসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের মজুত ও সরবরাহ স্বাভাবিক রয়েছে। এছাড়াও মিশর থেকে পিঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে, অল্প সময়ের মধ্যে এগুলো বাজারে আসবে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে মিশর থেকে আমদানিকৃত পিঁয়াজ খালাসের জন্য চট্রগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

১০ আগস্ট মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে আসন্ন ঈদ-উল আযহা উপলক্ষে পিঁয়াজ, রসুন, আদা, গরম মসলাসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য পর্যালোচনা সভায় সভাপতিত্বকালে বাণিজ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আসন্ন ঈদ-উল আযহায় চামড়ায় ব্যবহার এবং ভোজ্য লবণের চাহিদা মেটানোর জন্য ৫ লাখ মেট্রিক টন লবণ আমদানির প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে। দেশের চলমান ২ শত ৩২ টি লবণ মিলকে ২ হাজার ১ শত ৫০ মেট্রিক টন করে লবণ আমদানির অনুমতি প্রদান করা হয়েছে। এর মধ্যে কক্সবাজারের লবণ উৎপাদনকারি ও মিল মালিকরাও রয়েছেন।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ব্যবসাবান্ধব সরকার ব্যবসায়ীদের প্রয়োজনীয় সবধরণের সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে। সরকারের সহযোগিতা নিয়ে ব্যবসায়ীরাও বাণিজ্যক্ষেত্রে দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখছেন। পবিত্র ঈদ-উল আযহাকে সামনে রেখে যাতে কোন পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি না পায়, সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সকলকে দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখতে হবে। তিনি দেশের প্রচারমাধ্যম তথা সাংবাদিকদের দেশের প্রকৃত চিত্র তুলে ধরার আহ্বান জানান।

বাণিজ্যসচিব শুভাশীষ বসু, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম লস্কর, আমদানি ও রপ্তানি অধিদফতরের প্রধান নিয়ন্ত্রক আফরোজা খানসহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের মালিক ও প্রতিনিধিগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন। -পিআইডির সৌজন্যে