Friday, 24 November 2017

 

বাকৃবি কৃষি অর্থনীতি অনুষদের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল ও সংবাদ সম্মেলন

বাকৃবি প্রতিনিধি:বিভিন্ন চাকুরী ক্ষেত্রে কৃষি অর্থনীতি স্নাতকদের প্রতিবন্ধকতা নিরসন ও বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসে (বি.সি.এস.) কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের অধীনে প্রত্যেক উপজেলায় সহকারী পরিচালক পদ সৃষ্টিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে চাকুরির সুযোগ সৃষ্টির লক্ষ্যে সংবাদ সম্মেলন করেছে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) কৃষি অর্থনীতি ও গ্রামীণ সমাজবিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষার্থীরা।

দুপুর ১ টার দিকে বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক সম্মেলন কক্ষে ওই সম্মেলন আয়োজন করা হয়। এর আগে সকালে অনুষদের সামনে তারা একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। এতে কৃষি অর্থনীতি ছাত্র সমিতির সাধারণ সম্পাদকসহ কৃষি অর্থনীতি ছাত্র আন্দোলন পরিষদের নেতৃবৃন্দরা বক্তব্য রাখেন।
 
আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বলেন, বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনে (বিসিএস) ক্যাডার সার্ভিসে কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের অধীনে প্রত্যেক উপজেলায় সহকারী পরিচালক পদ সৃষ্টি করতে হবে ও নিয়োগ দিতে হবে। সরকারী-বেসরকারি বহু প্রতিষ্ঠানে চাকুরীর যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও কৃষি অর্থনীতি স্নাতকধারী আবেদন করতে পারছেন না। অনেক সরকারি প্রতিষ্ঠানে কৃষি অর্থনীতি  স্নাতকধারীদের পদ থাকলেও সেগুলোর নিয়োগ বন্ধ রয়েছে। সেগুলো চালু করে ওই পদে নতুন করে নিয়োগের দাবি জানান।

এছাড়াও শিক্ষা ক্যাডারে অর্থনীতি প্রভাষক পদে অর্থনীতির গ্র্যাজুয়েটদের সাথে কৃষি অর্থনীতির শিক্ষার্থীদের নিয়োগ প্রদান করতে হবে, নন-ক্যাডার ‘পরিসংখ্যান কর্মকর্তা’ পদে নিয়োগ, সরকারি ও স্বায়ত্বশাসিত গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (বারি, বিনা, বিএফআরআই, বিএলআরআই, বিএডিসি প্রভৃতি) কৃষি অর্র্থনীতিবিদদের জন্য আলাদা পদ সৃষ্টি ও চাকুরির সুযোগ দিতে হবে, বিসিএস নন-ক্যাডার “সমাজসেবা কর্মকর্তা” পদে সুযোগ দেওয়া, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের অধীনে গবেষণা ও মূল্যায়ন পদ সৃষ্টি, বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী পরিচালক (গবেষণা ও পরিসংখ্যান) পদে ‘অর্থনীতি ও পরিসংখ্যান’ স্নাতকদের পাশাপাশি কৃষি অর্থনীতি স্নাতকধারীদের সুযোগ দেওয়াসহ বেসরকারী ব্যাংকে সুযোগ সৃষ্টিসহ অতিদ্রুত ইর্ন্টানশিপ চালু করার দাবি জানান তারা।