Monday, 20 November 2017

 

গ্রীষ্মকালীন টমেটো চাষে ভাগ্য বদলাচ্ছে ব্রাম্মনবাড়িয়ার সবজি চাষীদের

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:অসময়ে এবং আগাম সবজি চাষে বাজারমূল্য একটিু বেশি পেয়ে থাকেন সবজি চাষীরা। গ্রীষ্মকালীন টমেটো তেমনি একটি সবজি যা চাষ করে সবজি চাষীরা বেশ লাভের মুখ দেখেন। এমনিতে দেশের কৃষকরা তাদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যমূল্য থেকে বঞ্চিত হন। তবে গ্রীষ্মকালীন টমেটো চাষ করে এ ধরনের সমস্যায় পড়তে হয় না বলে গ্রীষ্মকালীন টমেটো চাষ দ্রুত জনপ্রিয়তা পাচ্ছে।

দেশের ব্রাম্মনবাড়িয়ায় চাষীদের মাঝে গ্রীষ্মকালীন টমেটোর চাহিদা ও দাম দুটোই ভাল পাওয়ায় তারা এর আবাদের পরিধি বাড়াচ্ছেন। সবজি চাষীদের পাশাপাশি জেলার অনেক বেকার যুবকরা এটি চাষ করে তাদের বেকারত্ব ঘুচিয়ে আলোর মুখ দেখছেন। প্রতি বিঘা জমিতে টমেটো চাষে বাঁশের মাচা, পলিথিনের শেড, জমি তৈরি, চারা রোপণ ও পরিচর্যা মিলিয়ে খরচ হয় ১,২০,০০০-১,৫০,০০০ টাকা পর্যন্ত। বাজার দর ঠিক থাকলে প্রতি বিঘা জমি থেকে ৩-৪ লাখ টাকার টমেটো বিক্রির আশা করছেন এখানের চাষীরা।

গ্রীষ্মকালীন টমেটোর চারা উৎপাদন করে ২৫ দিন বয়স হলে এ চারা সারিবদ্ধভাবে লাগাতে হয়। ভালো উৎস থেকে বীজ সংগ্রহ করে চারা উৎপাদন করে  লাগানোর কথা বলেন তারা। জুন মাসে ক্ষেতে টমেটোর চারা রোপণ করলে জুলাই মাসের মাঝামাঝি টমেটো গাছে ফল আসতে শুরু করে। আগস্ট মাসের প্রথম সপ্তাহের পর থেকে টমেটো তুলে বাজারজাত করা যায়।

উল্লেখ্য, গ্রীষ্মকালীন টমেটো চাষে কৃষি বিভাগ প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদান করে থাকে।