Sunday, 21 January 2018

 

ওষুধ শিল্পের অগ্রযাত্রায় ওয়ান ফার্মা-কেএসএম মোস্তাফিজুর রহমান

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:তৈরী পোশাক শিল্পের মতোই দেশে ওষুধ শিল্পের অগ্রগতি উল্লেখ করার মতো। বর্তমানে দেশে ওষুধ শিল্পের অভ্যন্তরীণ বাজার প্রায় ১৭ হাজার কোটি টাকার ওপরে এবং আন্তর্জাতিক বাজার ২২০০ কোটি টাকারও বেশি। এ খাতে প্রবৃদ্ধির হার প্রায় ১৫ শতাংশের ওপরে। দেশের ক্রমবর্ধমান ওষুধ শিল্পের বাজারে ধীরে ধীরে একটি জায়গা করে নিচ্ছে ওয়ান ফার্মা লিমিটেড।

সম্প্রতি এগ্রিলাইফ২৪ ডটকমের সাথে এক সাক্ষাৎকারে ওয়ান ফার্মা লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর কেএসএম মোস্তাফিজুর রহমান এমনটাই জানালেন। তিনি বলেন পৃথিবীর অর্ধেকেরও বেশি দেশে ওষুধ রফতানি হচ্ছে। যেসব দেশে বাংলাদেশের ঔষধ রফতানি হচ্ছে সেসব দেশের যথাযথ রেগুলেটরি বিধিবিধান মেনে সঠিক তথ্য-উপাত্ত ও মান নিয়ন্ত্রিত তথ্য-প্রমাণ উপস্থাপনের মাধ্যমে তা সম্ভব হয়েছে বলে জানান ওয়ান ফার্মা এমডি।

তিনি জানান সঠিক নিয়ম-কানুন মেনে আন্তর্জাতিক গাইড লাইন অনুসরণ করে মান সম্পন্ন ঔষধ উৎপাদন করে ইতিমধ্যেই কোম্পানিটি ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছে। এ প্রসঙ্গে ওয়ান ফার্মা এমডি বলেন ঔষধ এমন একটি পণ্য যা উৎপাদনের প্রতিটি স্তরে মানতে হয় কঠোর মান নিয়ন্ত্রণ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থ্যার গাইডলাইন অনুযায়ী বাংলাদেশ সরকারের সংশ্নিষ্ট অধিদপ্তরের কঠোর তত্ত্বাবধানে এবং নীতিমালা মেনে দেশের ফার্মাসিউটিক্যালস্ কোম্পানীগুলি ঔষধ উৎপাদন করে যাচ্ছে। যাার ফলশ্রুতিতে দেশের উৎপাদিত ফার্মাসিউটিক্যালস প্রডাক্টগুলি এখন দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে।

সাফল্যের ধারাবাহিকতায় তৃতীয় বছরে পদার্পণ করেছে ওয়ান ফার্মা লিমিটেড। কেএসএম মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, “সরকারিভাবে সর্বাত্মক সহায়তা পেলে আগামী ১০ বছরের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের এক নম্বর ওষুধ রপ্তানিকারক দেশ হবে বাংলাদেশ। “শীর্ষ রপ্তানিকারক দেশ হিসেবে স্থান লাভ করার মতো সব ধরনের সম্ভাবনা বাংলাদেশের রয়েছে, তবে সেক্টরকে শীর্ষস্থান লাভ করতে ওষুধ শিল্প সমিতির পাশাপাশি ডাক্তারসহ সরকারি সংশ্লিষ্ট সকল সেক্টরের সহায়তা প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি।

উল্লেখ্য, কেএসএম মোস্তাফিজুর রহমানের প্রতিষ্ঠিত ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ার গ্রুপ-মান সম্পন্ন বালাইনাশক, সার, বীজ, সৌর বিদ্যুৎ, ঔষধ শিল্প, রিয়েল এস্টেট ও অন্যান্য ব্যবসা সফলতার সাথে পরিচালনা করে আসছে। এ ছাড়াও তার প্রতিষ্ঠিত সৈয়দ মোমেনা মোন্তাজ ফাউন্ডেশন শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে দরিদ্র জনগোষ্টির জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

দেশের বেসরকারি খাতে শিল্প স্থাপন, পণ্য উৎপাদন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও জাতীয় আয় বৃদ্ধিসহ দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান পালনকারী এ প্রতিষ্ঠানটিয মাঝারি শিল্প ক্যাটাগরিতে "ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ার ইমপোর্টস এন্ড এক্সপোর্টস" ২০১৪ সালের রাষ্ট্রপতির শিল্প উন্নয়ন অর্জন করে। এছাড়া, কৃষিবিদ কেএসএম মোস্তাফিজুর রহমান ইতিপূর্বে বাংলাদেশের কৃষির উন্নয়ন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক ২০১৩ সালের জন্য বাণিজ্যিক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি (সিআইপি) সম্মানে ভূষিত হন।

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৩ তম ব্যাচের ছাত্র ও নাট্য সংগঠন কিষাণ থিয়েটারের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কৃষিবিদ মোস্তাফিজুর রহমানের ওয়ান ফার্মা সহনীয় মূল্যে দরিদ্র মানুষের মাঝে ওষুধ পৌঁছে দিতে আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। উন্নত প্রযুক্তির এবং ভ্যাকসিন ও ইনসুলিন উৎপাদনের মাধ্যমে তারা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে ওয়ান ফার্মা।