Thursday, 23 November 2017

 

মুরগি-মাছের খাবার নিয়ে হাইকোর্টের রায় বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ

ডেস্ক:রাজধানীর হাজারীবাগের ট্যানারি বর্জ্য দিয়ে মাছ ও পোল্ট্রির খাবার প্রস্তুতকারক অর্ধশতাধিক প্রতিষ্ঠান বন্ধে হাইকোর্টের দেওয়া নির্দেশ বহাল রেখেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। বিচারপতি মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আপিল বেঞ্চ বুধবার এ রায় দেন।

উল্লেখ্য, ২০১০ সালের ২৬ জুলাই জনস্বার্থে হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিচ ফর বাংলাদেশের পক্ষে অ্যাডভোকেট মনজিল মোরশেদ এ বিষয়ে একটি রিট মামলা দায়ের করেছিলেন। আবেদনে বলা হয়, ট্যানারি বর্জ্য ব্যবহার করে তৈরি করা খাদ্য মুরগী ও মাছ উভয়ের জন্যই অস্বাস্থ্যকর। এসব অস্বাস্থ্যকর খাদ্য দিয়ে চাষ করা মুরগী ও মাছ খেলে মানুষেরও মারাত্মক স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দিতে পারে।

রিট আবেদনের শুনানি শেষে ২০১১ সালের ২১শে জুলাই হাইকোর্ট এক রায়ে ট্যানারি বর্জ্য দিয়ে মুরগি ও মাছের খাবার প্রস্তুত কার্যক্রম বন্ধ করতে নির্দেশ দেয়। একই সঙ্গে এ কাজের সঙ্গে যারা জড়িত, তাদের বিরুদ্ধে মৎস্য ও পশু খাদ্য আইনে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন আদালত। পরে  হাইকোর্টের ওই রায়ের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ফিশ মিট ও অ্যানিমেল গ্লু প্রস্তুতকারক বহুমুখী সমবায় সমিতি লিমিটেডের পক্ষ থেকে লিভ টু আপিল দায়ের করা হয়।