Thursday, 23 November 2017

 

বাংলাদেশে বায়োগ্যসের বর্তমান এবং ভবিষ্যত বিষয়ক একটি ষ্টাডি ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:রাজধানীতে ‘Situation Analysis and Future Perspective of Agro-Industrial Biogas Plants in Bangladesh’ শীর্ষক একটি ষ্টাডি ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার ১৮ ডিসেম্বর বিকেল ৩:৩০ মিনিটে–এ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনষ্টিটিটিউট-SREDA এর মাল্টিপারপাস সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত ওয়ার্কশপে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ এনার্জি এন্ড পাওয়ার রিসার্চ কাউন্সিলের চেয়ারম্যান জনাব মো: আনোয়ারুল ইসলাম সিকদার এনডিসি।

ওয়ার্কশপে University of science and Technlogy Beijing, Centre of Sustainable Environmental Sanitation এর Guest-Professor Mr. Heniz-Peter Mang বাংলাদেশে বায়োগ্যাসের একটি স্টাডি রিপোর্ট চমৎকার ভাবে তুলে ধরেন। এসময় তিনি Agro-industrial Biogas plants,, scope of work, Agro-commercial Biogas, Plants per District (2015/16), Survey Process with all identified biogas plants, Energy output and social impact, Agricultural and environmental impact, Identified minimum benchmarks, Biogas Potential with dairy, cattle and buffalo farms, Biogas Potential with chicken farms, Other identified agro waste for commercial biogas, summary of findings, BARRIERS TO MARKET DEVELOPMENT, Stakeholder analysis of given situation, Stakeholder analysis for needed situation, Potential and gaps, How to boost the market, five typical concepts for agro-industrial plants, Proposed road map এবং সবশেষে তিনি এর উপর একটি সুপারিশমালা পেশ করেন।

ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠানে উপস্থিত আলোচক ও অতিথিরা এমন সুন্দর একটি তথ্যভিত্তিক রিপোট উপস্থাপন করার জন্য Mr. Heniz-Peter Mang-কে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। বক্তারা বলেন, তারা যে চেষ্টা করেছেন তা সত্যিই অসাধারন। সভায় উপস্থিত আলোচকদের মধ্যে কয়েকজন তাদের কিছু অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে বলেন, নি:সন্দেহে বায়োগ্যাস বাংলাদেশের জন্য আগামী দিনের জ্বালানী ঘাটতি মোকাবেলাইয় একটি অন্যতম হাতিয়ার। তবে এনিয়ে অগ্রগতির হার আশাব্যঞ্জক নয়। ছোট ছোট আকারে বায়োগ্যাসের হার বাড়লেও সেখানে স্লারী ব্যবস্থাপনাটি অন্যতম সমস্যা। বিশেষ করে বর্ষাকালের সময়টিতে তারা বেশ বিড়ম্বনার সম্মুখিন হন। তবে তারা বড় বড় প্রকল্পের ব্যাপারে আশাবাদী এবং এজন্য সরকারী নীতি নির্ধারকদের সাথে নিবিড় যোগাযোগ বাড়ানোর মাধ্যমে তা বাস্তবায়ন সম্ভব বলে তারা মত প্রকাশ করেন।

Bangladesh Biogas Development Foundation এর চেয়ারম্যান জনাব এম এ গোফরানের পরিচালনায়  ওয়ার্কশপে আরো বক্তব্য রাখেন IDCOL এর Executive Director and Ceo Mr. Mahmood Malik, Mr. Siddique zobair, Member (EE&C), SREDA এবং  Mr.Al Mudabbir Bin Anam, Officer Responsible for the commission, (Programe Coordinator) sustainable Energy for Development (SED).

ওয়ার্কশপে আগতরা মনে করেন বায়োগ্যাস নিয়ে আরো ব্যাপক কাজ করা প্রয়োজন। আজকের রিপোর্টটি এক্ষেত্রে তাদেরকে অনেক সহযোগিতা করবে। কোথায় এ সেক্টরটি এগিয়েছে এবং কোথায় কোথায় বাঁধা সেগুলি চিহ্নিত করে কার্যকর পদক্ষেপ নিলেই কেবল এর সাফল্য সম্ভব বলে মনে করেন আরোচকরা।