Monday, 20 November 2017

 

গনবি'তে বিশ্ব পানি দিবসঃ আগামী দশকে পানির জন্য যুদ্ধ হবে

বিধান মুখার্জী. গণ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:বুধবার  বিশ্ব পানি দিবস উপলক্ষে সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে 'গণ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবেশ ক্লাব' এর উদ্যোগে  "Why Waste Water" থিমকে সামনে রেখে র‍্যালি ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২২ মার্চ বেলা ১ টায় র‍্যালি ও সমাবেশ অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের  কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. ইকবাল জুবেরী,সমাজ কর্ম ও সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের সিনিয়র প্রভাষক শহীদ মল্লিক, রাজনীতি ও প্রশাসন বিভাগের শিক্ষক আবু সালেহ সহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ এবং প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করেন।র‍্যালিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমীক ভবনের সামনে থেকে শুরু হয়ে প্রশাসনিক ভবনের সামনে দিয়ে প্রদক্ষিণ করে আবার একাডেমীক ভবনের সামনে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।

এসময় গণ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবেশ ক্লাবের সভাপতি মুন্নি আক্তারের উপস্থাপনায় সেমিনারে বক্তারা পানির দূষন, দূষন রোধ, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় পানির গুরুত্বসহ পানি সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয়ে বক্তব্য দেন এবং ১৯৯৬ সালের বাংলাদেশ-ভারত পানি বন্টন চুক্তির বাস্তবায়নের দাবি জানান।এসময় প্রফেসর ড. ইকবাল জুবেরী তাঁর বক্তব্যে বলেন, 'নদী মাতৃক আমাদের দেশে মৃত প্রায় অনেক নদীর মত পানির সঠিক ব্যবহার সম্পর্কে আমাদের অসচেতনতা আমাদের গ্রাস করে ফেলেছে'।  

বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি ও প্রশাসন বিভাগের শিক্ষক আবু সালেহ তাঁর বক্তব্যে বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবে ইতোমধ্যে দেশের কৃষকরা নানা সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। চাষাবাদ  ঠিকমতো করতে পারছে না। ফসলের জন্য ভূ-গর্ভস্থ পানি ব্যবহার প্রায় অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে। শুষ্ক মৌসুমে পানির স্তর অনেক নিচে নেমে যাওয়ার কারণে বিশুদ্ধ খাবার পানি সংগ্রহ করাও চ্যালেঞ্জিং হয়ে দাঁড়িয়েছে।এছাড়া বিশ্বে বিশুদ্ধ পানির অপ্রতুলতার কথা উল্লেখ করে আগামী দশকে সামরিক অস্ত্র নয়, বিশুদ্ধ পানির জন্য যুদ্ধ হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।  

ক্লাবের সভাপতি মুন্নি আক্তার বলেন, সমস্যা উত্তরণে পানির অপচয়রোধ গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। অপচয়রোধে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য সরকারি-বেসরকারি সব পক্ষকে এগিয়ে আসতে হবে।

উল্লেখ্য, জীবন ও জীবিকার জন্য পানির সঠিক ব্যবহার ও টেকসই ব্যবস্থাপনার ওপর গুরুত্বারোপ করে ১৯৯২ সালে ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরোতে রাষ্ট্রসংঘ পরিবেশ ও উন্নয়ন সম্মেলনের (ইউএনসিইডি) এজেন্ডা ২১-এ প্রথম বিশ্ব জল দিবস পালনের আনুষ্ঠানিক প্রস্তাবটি উত্থাপিত হয়। ১৯৯৩ সালে প্রথম বিশ্ব জল দিবস পালিত হয় এবং তার পর থেকে এই দিবস পালনের গুরুত্ব ক্রমশ  বৃদ্ধি পেতে থাকে। ১৯৯৩ সাল থেকে জাতিসংঘের উদ্যোগে প্রতিবছর ২২ মার্চ বিশ্ব পানি দিবস পালিত হয়ে আসছে। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ছিল 'বর্জ্য পানির পুনর্ব্যবহার'।