Thursday, 14 December 2017

 

১৫ মে থেকে পলিথিন ও প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহারের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু-মির্জা আজম

পরিবেশ ডেস্ক: বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে পলিথিন ও প্লাস্টিক-ব্যাগ ব্যবহারের বিরুদ্ধে আগামি ১৫ মে থেকে সারাদেশব্যাপী বিশেষ অভিযান শুরু হবে। পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন,২০১০ এ নির্ধারিত ১৭টি পণ্য যেমন ধান, চাল, গম, ভুট্টা, সার, চিনি, মরিচ, হলুদ, পেঁয়াজ, আদা, রসুন, ডাল, ধনিয়া, আলু, আটা, ময়দা ও তুষ-খুদ-কুড়া পরিবহণ ও সংরক্ষণে পাটের ব্যাগের ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

৭ মে রবিবার সচিবালয়ে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে নৌ-পরিবহণ মন্ত্রণালয় এবং সড়ক পরিবহণ সেক্টরে জড়িত সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা ও নেতৃবৃন্দের এক সমন্বয়সভায় এ তথ্য জানানো হয়। বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ।

প্রতিমন্ত্রী পাটের অতীত গৌরবের বিবরণ দিয়ে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর একান্ত আগ্রহেই আবার আমরা সোনালি আঁশের সুদিন এবং এর বহুমুখী ব্যবহার এমনভাবেই ফিরিয়ে আনবো যাতে জনগণ পাট উৎপাদনে আগ্রহী হয়। তিনি বর্তমানে দেশে পাট ও বস্ত্রের সংমিশ্রণে উন্নতমানের সার্ট ও প্যান্টসহ জিন্সকাপড়ের উৎপাদনের কথা উল্লেখ করে পণ্যের মোড়কে স্বাস্থ্যহানিকর পলিথিন ও প্লাস্টিকব্যাগ ব্যবহার বর্জনে সবার সহযোগিতা কামনা করেন।  

এই আইন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সারাদেশের সকল সড়কপথ, জলপথ, স্থলবন্দর, মালামাল পরিবহণকারী যানবাহন, উৎপাদনকারী, প্যাকেটজাতকারী, আমদানিকারক-রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে বিশেষ অভিযান চালানো হবে। স্বরাষ্ট্র, বন ও পরিবেশ, সড়ক ও সেতু পরিবহণ, নৌপরিবহণ, বস্ত্র ও পাটমন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়সমূহ, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও র‌্যাবের সহায়তায় এই বিশেষ অভিযান পরিচালিত হবে।

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব প্রাপ্ত অতি. সচিব কৃষ্ণ ভট্টাচার্য, পাট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোছলেহ উদ্দিন, বিজেএমসির চেয়ারম্যান ড. মো. মাহমুদুল হাসান, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ফেডারেশন, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ সমিতি, বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওর্নাস এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতি, ট্রাক এজেন্সি সমিতি, বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন এবং লঞ্চ মালিক সমিতির প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন স্টোক হোল্ডারগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।-পিআইডি’র সৌজন্যে