Friday, 15 December 2017

 

দেশে পুষ্টি সম্প্রসারণের জন্য কৃষি বিষয়ক প্ল্যাটফর্ম Ag4N নির্মাণ’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম ডেস্ক:শনিবার ২০ মে, ২০১৭ তারিখে শের-ই-বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ওয়াইপার্ড বাংলাদেশ’ (YPARD) এবং ‘ইনজেনিয়াস’ এর যৌথ উদ্যোগে ‘বাংলাদেশে পুষ্টি সম্প্রসারণের জন্য কৃষি বিষয়ক প্ল্যাটফর্ম Ag4N নির্মাণ’ শীর্ষক অর্ধ-দিনব্যাপী এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এই কর্মশালার প্রতিবাদ্য বিষয় ছিল, ‘পুষ্টির জন্য জন্য কৃষিতে নেটওয়ার্কিং’।  

নেটওয়ার্কিং ও কমিউনিকেশন শীর্ষক এই কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন কৃষি বিজ্ঞানী, কৃষি বিশেষজ্ঞ, গবেষক, শিক্ষার্থী এবং তরুণ কৃষি পেশাজিবীগন । এই কর্মশালায় কীভাবে নেটওয়ার্কিং ও কমিউনিকেশন এ দুই মাধ্যম ব্যবহার করে দেশের সার্বিক কৃষি ও পুষ্টি ব্যবস্থাপনাকে আধুনিক বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে আরও যুগোপযোগী করা যায় সে বিষয়ে ধারণা প্রদান করা হয়।  

কর্মশালার সূচনা বক্তব্য প্রদান করেন করেন বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট ফর আইসিটি ইন ডেভেলপমেন্ট (বিআইআইডি) এর ডিরেক্টর শহীদ উদ্দিন আকবর। তিনি প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে কীভাবে তরুণ সমাজকে কৃষি ও পুষ্টির সমস্যা সমাধানে অবদান রাখার জন্যে আরও উদ্বুদ্ধ করা যায় সে উপায় বের করার ব্যাপারে গুরুত্ব আরোপ করেন। কর্মশালার শুরুতে ‘ওয়াইপার্ড বাংলাদেশ’ এর কোর কোর সদস্য এবং বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের (বিএআরসি) এর কৃষি তথ্য কেন্দ্রের সিনিয়র ডকুমেন্টেশন কর্মকর্তা, ডক্টর সুস্মিতা দাস ‘ওয়াইপার্ড বাংলাদেশ’ এর প্রতিষ্ঠার প্রেক্ষাপট, লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য সম্পর্কে একটি প্রেজেন্টেশন প্রদান করেন। উল্লেখ্য ওয়াইপার্ড’ (YPARD, www.ypard.net) হচ্ছে বাংলাদেশে কৃষি উন্নয়নের কাজে নিয়োজিত একদল তরুণ কর্মী ও সংগঠকদের দ্বারা গঠিত সংগঠন।

মূল কর্মশালাটি পরিচালনা করেন যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয়েস বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে পরিচালিত ‘ইনজেনিয়াস’ প্রকল্পের সহকারী পরিচালক Andrea B. Bohn। উল্লেখ্য, ‘ইনজেনিয়াস’ হচ্ছে কৃষি সম্প্রসারণ ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে জেন্ডার ও পুষ্টি সমতার উদ্দ্যেশ্যে ইউএস এআইডি এর অর্থায়নে পরিচালিত একটি প্রকল্প।

মূল কর্মশালাটি চারটি ধাপে সম্পন্ন হয় যেখানে অংশগ্রহণকারীরা ছোট ছোট দলে ভাগ হয়ে গ্রুপ ভিত্তিক কাজ সম্পন্ন করেন। উদ্দেশ্য, মূলনীতি, অংশগ্রহণকারী, পরিকাঠামো এবং কার্যসাধন এই চারটি স্তম্ভবকে ভিত্তি করে নির্মিত চক্রকে কাজে লাগিয়ে কীভাবে কৃষি ও পুষ্টি বিষয়ক জ্ঞান আরও সহজে ও স্বল্প সময়ে বৃহৎ জনগোষ্ঠীর কাছে পৌঁছানো যায় সে সম্পর্কে অংশগ্রহণকারীরা হাতে কলমে শিক্ষা লাভ করেন।  

কর্মশালার শেষ অংশে অংশগ্রহণকারীরা কৃষি ও পুষ্টি জ্ঞান বিষয়ক প্ল্যাটফর্ম ওয়াইপার্ডকে কীভাবে আরও কার্যকারী করা যায় সে সম্পর্কে সুপারিশ প্রদান করেন। তারা মনে করেন যে সোশ্যাল মিডিয়া কৃষি ও পুষ্টি বিষয়ক তথ্য আদান প্রদানে ভালো ভূমিকা রাখতে পারে। এইক্ষেত্রে তরুণ প্রজন্মকে আরও আগ্রহী করে তোলা যেতে পারে। অংশগ্রহণকারীরা সবাই তরুণ কৃষি পেশাদারীদের জন্য নির্মিত এই জ্ঞান ও তথ্য ভিত্তিক প্লাটফর্মকে আরও অধিক পরিমাণে ব্যবহারের জন্য প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন। তারা বলেন তারা আরও অধিক সদস্যকে এই প্লাটফর্মে দেখতে চান এবং এর জন্য প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদানে রাজী আছেন বলে জানান।

কর্মশালায় সমাপনী বক্তব্য প্রদান করেন শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. সেকান্দার আলী, প্লান্ট প্যাথলজি বিভাগের সহযোগি অধ্যাপক আবু নোমান ফারুক আহমেদ, ওয়াইপার্ড বাংলাদেশ’র কোর সদস্য মো. আরিফ খান, পাপিয়া জাহান, মোস্তাক আহমেদ, মো. মাহবুবুর রহমানসহ বিভিন্ন গবেষণা ও উন্নয়ন সহযোগি প্রতিষ্ঠানের তরুণ পেশাজীবীরা।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি