Thursday, 14 December 2017

 

সিলেটে বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস ২০১৭ পালিত

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম, ডেস্ক:সিলেট তথা বাংলাদেশের ইতিহাসে অঞ্চল বা জেলা পর্যায়ে প্রথমবারের মতো পালিত হলো বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস। দিবসটি উদযাপনের লক্ষ্যে কৃষি মন্ত্রণালয়ের মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট, সিলেট কর্তৃক শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আজ মঙ্গলবার ০৫ ডিসেম্বর সকাল ১০.০০ টায় মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট, সিলেট কার্যালয় অঙ্গন থেকে শোভাযাত্রা করে সিলেট-ঢাকা মহাসড়ক দিয়ে চন্ডীপুল পয়েন্ট ঘুরে অফিস প্রাঙ্গনে এসে শেষ হয়। অত:পর কার্যালয়ের সেমিনার কক্ষে আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উক্ত শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভায় কৃষি মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন দপ্তরের অফিসার, অগ্রগামী কৃষক ও মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট, সিলেটের অফিসার ও কর্মচারীবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

আলোচনা সভায় বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস সম্পর্কিত একটি চমৎকার পাওয়ার পয়েন্ট ও ডকুমেন্টারি উপস্থাপন করেন কৃষিবিদ মেহেদী হাসান, বৈজ্ঞানিক অফিসার, এসআরডিআই, সিলেট। উক্ত আলোচনা সভায় মাটির গুরুত্ব, ব্যবস্থাপনা ও নানাবিধ তথ্যাদি বিষয়ক সংশ্লিষ্ট দপ্তরের মৃত্তিকা বিজ্ঞানীগণ বক্তব্য রাখেন। অত:পর কৃষক প্রতিনিধিরাও এ বিষয়ে কথা বলেন।

অতিথি অফিসারদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কৃষিবিদ ড. মাহমুদুল ইসলাম নজরুল, উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক অফিসার, সরেজমিন গবেষণা বিভাগ, বারি, সিলেট এবং কৃষিবিদ মোহাইমিনুর রশিদ, আঞ্চলিক বেতার কৃষি অফিসার, কৃষি তথ্য সার্ভিস, সিলেট। আলোচনা অনুষ্ঠানের সভাপতির বক্তব্য উপস্থাপন করেন কৃষিবিদ ড. মো. রফিকুল ইসলাম, প্রধান বৈজ্ঞানিক অফিসার, এসআরডিআই, সিলেট।

উল্লেখ্য যে, উদ্ভিদের জন্ম-বৃদ্ধিসহ মানব কল্যাণে মৃত্তিকার গুরুত্বকে স্বীকৃতি দিতেই বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস নির্ধারণ করা হয়েছে। মৃত্তিকার সঠিক পরিচর্যার গুরুত্ব বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য মৃত্তিকা বিজ্ঞানের আন্তর্জাতিক ইউনিয়ন (আই ইউ এস এস) ২০০২ সালে বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস এর বিষয়ে প্রস্তাব উত্থাপন করে। পরবর্তীতে এটি জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য সংস্থা কর্তৃক অনুমোদিত হওয়ায় প্রতি বছর ৫ ডিসেম্বর এই দিবসটি সারা বিশ্বে উদযাপিত হয়। থাইল্যান্ডের রাজা ভুমিবল আদূলিয়াদেজের জন্মদিনকে সম্মান জানাতেই এই দিনটিকে বেছে নেয়া হয়েছে। কারণ, তিনি সরকারিভাবে এরকম একটি দিবস পালনের অনুমতি প্রদান করেন। আর তিনি নিজেও মৃত্তিকা বিজ্ঞানের প্রচার ও মৃত্তিকা সম্পদ সংরক্ষণের বিষয়ে উত্সাহ প্রদান করে থাকেন।

একটা জনপ্রিয় গানের চরণের মতো "মাটির গভীর থেকে উঠে আসা ভালোবাসা…হৃদয়ে হৃদয় মিলে গড়ব সবাই। এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য বিষয় নির্ধারিত হয়েছে “Caring for the planet; starts from the ground." অর্থ্যাৎ পৃথিবীর যত্ন নাও আর তা মাটি থেকেই শুরু কর । মাটির প্রতি ভালোবাসা ছড়িয়ে পড়ুক জনে জনে, মনে মনে।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি