Sunday, 23 July 2017

 

রমনা পার্কে সৌন্দর্যবর্ধন কাজ শুরু

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম,ডেস্ক:রমনা পার্কে ১০টি মিলেশিয়া গাছ রোপণের মাধ্যমে আজ থেকে সৌন্দর্যবর্ধন, ঐতিহ্য সুরক্ষা ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণের কাজ শুরু হয়েছে। এ কর্মসূচির আওতায় জরিপ কাজ পরিচালনার মাধ্যমে অপ্রয়োজনীয় গাছ অপসারণ করে পরিকল্পনা মোতাবেক সুনির্দিষ্ট বৃক্ষরোপণ, উন্মুক্ত স্থান নির্ধারণ, প্রতিটি গাছের ইতিহাসসহ পরিচিতি ফলক লাগানো এবং অপ্রয়োজনীয় স্থাপনা অপসারণ করা হবে।

এ উপলক্ষে শনিবার রমনা পার্কের ইউরো রেস্তোরায় সরকারি কর্মকর্তা, বিশেষজ্ঞ ব্যক্তি ও রমনা পার্ক ব্যবহারকারীদের নিয়ে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, রমনা পার্কের সৌন্দর্যবর্ধনে সবাই এগিয়ে এসেছেন। ফলে এর সংস্কার কাজ করা অনেক সহজ হবে। ইতোমধ্যে ছায়ানটের বর্ষবরণ ছাড়া আর কোনো অনুষ্ঠানের অনুমতি না দেয়ার বিষয়ে সরকারি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এ পার্কের সৌন্দর্যবর্ধন ও ঐতিহ্য রক্ষায় সম্ভব সকল কিছুই করা হবে। পার্কের লেকে পরিকল্পিতভাবে জাতীয় ফুল শাপলাসহ অন্যান্য জলজ উদ্ভিদ লাগানো হবে।

তিনি বলেন, অনিয়ন্ত্রিতভাবে রমনা পার্ক ব্যবহার হওয়ায় এর সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। ফলে অনেক দুর্লভ বৃক্ষ ও তরুলতা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে এবং পার্কের ঐতিহ্য নষ্ট হচ্ছে। অস্থায়ী ও ভ্রাম্যমান হকারদের উপদ্রবের কারণে রমনা পার্কের জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে পড়েছে।  

গৃহায়ন ও গণপূর্ত সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে রমনা পার্ক ফেডারেশন অব ওয়াকার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি এ আর খান, গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মো. হাফিজুর রহমান মুন্সি, প্রধান স্থপতি কাজী গোলাম নাসির, বিশিষ্ট গবেষক দ্বিজেন শর্মা এবং অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম বক্তৃতা করেন।  

রমনা পার্কের উন্নয়নে কমিটি গঠন

রমনা পার্কের উন্নয়নে মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ঢাকা গণপূর্ত সার্কেল-১ এর তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলীকে প্রধান করে সাত সদস্যের ডিজিটাল সার্ভে কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অপর সদস্যরা হলেন- স্থাপত্য অধিদপ্তরের উপপ্রধান স্থপতি সৈয়দ আমিনুর রহমান, গণপূর্ত আরবরিকালচারের প্রধান বৃক্ষ পালনবিদ, বিশিষ্ট গবেষক দ্বিজেন শর্মা, স্থপতি মুসতাক কাদরী, স্থপতি তুগলক আজাদ ও উদ্ভিদবিদ শরিফ হোসেন। ঢাকা গণপূর্ত জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলীকে প্রধান করে মাস্টার প্ল্যান প্রণয়ন কমিটি নামে ১৬ সদস্যের অপর একটি কমিটি গঠন করা হয়।-পিআইডি