Friday, 24 November 2017

 

নোবিপ্রবিতে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক স্পীকার আব্দুল মালেক উকিল হল ও আইসিটি ক্যারিয়ার ক্যাম্প ২০১৬ উদ্বোধন

কামরুল হাসান শাকিম, নোবিপ্রবিতে থেকে:নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) নবনির্মিত বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক স্পীকার আব্দুল মালেক উকিল হল এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত "আইসিটি ক্যারিয়ার ক্যাম্প ২০১৬" অনুষ্ঠানের উদ্ধোধন করেছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব ওবায়দুল কাদের এমপি।

২০ নভেম্বর রোববার সকালে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তিনি এর আনুষ্ঠানিক উদ্ধোধন করেন। এর আগে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকে স্থাপিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জনাব জুনায়েদ আহমেদ পলক এমপি, নোয়াখালী-২ আসনের সাংসদ জনাব মোরশেদ আলম, নোয়াখালী ৬ আসনের সাংসদ জনাব আয়েশা আলী, জেলা প্রশাসক বদরে মুনির ফেরদৌস, জেলা পুলিশ সুপার ইলিয়াছ শরিফ, নোবিপ্রবি উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. আবুল হোসেন, শিক্ষক সমিতির সভাপতি জনাব মেহেদি মাহমুদুল হাসান, রেজিস্ট্রার প্রফেসর মো. মমিনুল হক, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনম অধ্যক্ষ খারুল আনম সেলিম, নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র শহীদ উল্লাহ খান প্রমুখ।

আইসিটি ক্যারিয়ার ক্যাম্প অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, মেধাবী শিক্ষার্থীরা রাজনীতিতে না আসলে ঐ স্থান খারাপদের দখলে চলে যাবে। এসময় মন্ত্রী নোবিপ্রবি উপাচার্যের উদাহরণ টেনে বলেন, ছাত্র রাজনীতি করে এবং একই সঙ্গে ভাল ফলাফল করে যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হওয়া সম্ভব তার প্রমাণ এ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড. এম অহিদুজ্জামান।

মন্ত্রী তরুণ ও ট্যালেন্ট শিক্ষার্থীদের মাদক থেকে দূরে থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেন, আজকের তরুণদের বিশাল একটা অংশ ইয়াবার মতো মাদকের ছোবলে পরাজিত। কিন্তু এ পরাজয় দেশকে পিছিয়ে দিবে। এসময় মন্ত্রী তরুণদের এ থেকে দূরে থাকার আহ্বান জানান।

জুনায়েদ আহমেদ পলক  এমপি বলেন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির উন্নয়নের মাধ্যমেই বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করা সম্ভব। বর্তমান সরকার একটি সম্মৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে একুশ শতকের উপযোগী দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তুলছে। সে লক্ষ্যে বিশ্বমানের প্রশিক্ষণে তথ্যপ্রযুক্তিতে প্রশিক্ষত জনবল তৈরি করা হচ্ছে। আর দেশের মেধাবী তরুণ-তরুণীদের এ সুযোগটি কাজে লাগানোর জন্য এগিয়ে আসতে হবে।

এসময় তিনি নোবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের জন্য দেড় কোটি টাকা ব্যয়ে অত্যাধুনকি একটি ডিজিটাল ল্যাব প্রতিষ্ঠা ও চারটি বিভাগের মেধাবী শিক্ষার্থীদের ১০০টি ল্যাপটপ দেয়ার ঘোষণা দেন। এছাড়াও ক্যাম্পাসে একটি বিজনেস আইটি সেন্টার, ওয়াফাই সুবিধা এবং নোয়াখালীতে একটি আইটি পার্ক নির্মাণের ঘোষণা দেন।

সভাপতির বক্তৃতায় উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান বলেন, আইটি নির্ভর শ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয় হলো নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। এখানকার শিক্ষার্থীদের বিচরণ আজ সারা বিশ্বময়। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা দেশরতœ শেখ হাসিনার ২১ সালের ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ড. মো হুমায়ুন কবির, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যান ও হলের প্রভোস্ট, প্রক্টর মুহাম্মদ মুশফিকুর রহমান, অফিসার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি জনাব তারেক মো. রাশেদ উদ্দিন ও সেক্রেটারি সাখাওয়াত হোসেন পাভেল সহ শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচরীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।