Friday, 17 November 2017

 

সড়ক দূর্ঘটনায় গণ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী সবুজ গুরুতর আহত

বিধান মুখার্জী, গণ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি: রবিবার ৪ ডিসেম্বর বেলা ১১ টায় সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বাইশমাইলর রাস্তা পারাপারের সময় মারাত্মক সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হন গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের তৃতীয় সেমিস্টারের ছাত্র এবং তরুণ সাংবাদিক  সবুজ মিয়া।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে রাস্তা পারাপারের সময় পেছন থেকে আসা দ্রুতগতির মোটরসাইকেলের আঘাতে সবুজ দুর্ঘটনাস্থলেই  জ্ঞান হারান। অন্যান্য শিক্ষার্থীরা সবুজকে উদ্ধার করে নিকটবর্তী গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার জানান প্রাণের আশংকা না থাকলেও  তার বুকের বা পাশের ক্ল্যাভিকল হাড় ভেঙ্গে গিয়েছে এবং মাথায়  আঘাত লেগেছে এছাড়া এক্স-রে মেশিনের অভাবে চিকিৎসা  চালিয়ে যেতে অপারগতাও প্রকাশ করেন তিনি ।  

গণস্বাস্থ্য হাসপাতালে চিকিৎসা সম্ভব না হওয়ায় পরে তাকে এ্যাম্বুলেন্স যোগে নিকটবর্তী শেখ ফজিলাতুন্নেসা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানকার কর্তব্যরত ডাক্তাররা মাথার করোটিতে আঘাত লেগে রক্ত ক্ষরণের চিহ্ন দেখে তাকে ঢাকাস্থ ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ নিউরোসাইন্সেস হাসপাতালে শিফট করার পরামর্শ দিলে পুনরায় সন্ধ্যার দিকে সবুজকে ঐ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।     

ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বাইশমাইলে গণস্বাস্থ্য সমাজ ভিত্তিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের রোগী ও গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাসহ  হাজার হাজার  পোশাক কারখানার শ্রমিক নিত্য প্রয়োজনে প্রতিদিন জীবনের ঝুকি নিয়ে  রাস্তা পারাপার হয়ে থাকেন। শিক্ষার্থীরা জানান, ঢাকা আরিচা মহাসড়কের এই ব্যস্ত পয়েন্টে বারবার দুর্ঘটনা  এমনকি প্রাণনাশের ঘটনা ঘটা সত্তেও সংশ্লিষ্ট প্রশাসন কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় ক্রমাগত দুর্ঘটনা ঘটেই চলেছে। উল্লেখ্য, গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজার হাজার শিক্ষার্থীদের অনেকদিনের দাবি বাইশমাইলে স্পীডব্রেকার এবং ফুট-ওভারব্রিজ স্থাপন। এখনই কোন পদক্ষেপ না নিলে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামার হুমকিও দিয়েছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য যে, ঘাতক মোটরসাইকেল দ্রুত স্থান ত্যাগ করায় আটক করা সম্ভব হয়নি।