Monday, 18 December 2017

 

রাবিতে প্রকৌশলবিদ্যা সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু

এস.এম.আল-আমিন,রাবি প্রতিনিধিঃ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) প্রকৌশল অনুষদের উদ্যোগে বৃহস্পতিবার থেকে প্রকৌশলবিদ্যা সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু হয়েছে। এদিন সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয় সিনেট ভবনে দুই দিনব্যাপী ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন কম্পিউটার, কমিউনিকেশন, কেমিক্যাল, ম্যাটেরিয়াল্স এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (International Conference on Computer, Communication, Chemical, Materials & Electronic Engineering) শীর্ষক এই সম্মেলনের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রাবি উপাচার্য প্রফেসর মুহম্মদ মিজানউদ্দিন।

রাবি ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক সিনথিয়া শবনম মৌ’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর রফিকুল আলম বেগ ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর চৌধুরী সারওয়ার জাহান। প্রকৌশল অনুষদের অধিকর্তা প্রফেসর মো. মামুন-উর-রশিদ খন্দকারের সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সম্মেলনের সম্পাদক কম্পিউটার সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রফেসর মো. একরামুল হামিদ।

সম্মেলন উদ্বোধন করে উপাচার্য তাঁর বক্তৃতায় বলেন, স্বাধীনতার পর ৪৫  বছরে বাংলাদেশ বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রভূত উন্নতি করেছে। আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি জ্ঞান-বিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখাতে উন্নয়নও অপরিহার্য। এজন্য প্রয়োজন নিরন্তর গবেষণা ও আধুনিক বিশ্বের সাথে মতবিনিময়। সেই লক্ষ্যে এই সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। উপাচার্য আরো বলেন, এই সম্মেলনের মাধ্যমে অংশগ্রহণকারী গবেষক-বিজ্ঞানীদের মধ্যে পারস্পরিক জ্ঞান ও অভিজ্ঞতার বিনিময় ঘটবে যা আগামীতে উন্নততর গবেষণার বাতায়ন উন্মোচন করবে।

সম্মেলন উদ্বোধনের পর সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত হয় কি-নোট সেশন। প্রফেসর মামনুনুল কেরামতের সভাপতিত্বে এই সেশনে ৫টি প্রবন্ধ উপস্থাপিত হয়। বৃহস্পতিবার ম্যাটেরিয়ালস, কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ও কম্পিউটার এন্ড কমিউনিকেশন বিষয়ক ৩টি টেকনিক্যাল সেশনে ১৯টি ও একটি পোস্টার সেশনে ১৯টি প্রবন্ধ উপস্থাপিত হবে বলে নির্ধারিত আছে। শুক্রবার ন্যানোটেকনোলজি, কম্পোজিট ম্যাটেরিয়ালস, বায়োমেডিকেল, ভিএলএসআই, ইমেজ প্রসেসিং ও প্যাটার্ন রিকগনিশন বিষয়ক ৬টি সেশনে ২টি আমন্ত্রিত বক্তৃতা ছাড়াও ১৯টি প্রবন্ধ উপস্থাপিত হবে।

এই সম্মেলনে বাংলাদেশ ছাড়াও অংশ নিচ্ছেন কয়েকটি দেশের ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, কম্পিউটার সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং, ইনফরমেশন সায়েন্স ও কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং, ম্যাটেরিয়ালস সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং, ফলিত রসায়ন ও রসায়ন প্রকৌশল এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ের উচ্চতর পর্যায়ের শিক্ষক, গবেষক, শিক্ষার্থী ও পেশাজীবী বিশেষজ্ঞগণ।###