Monday, 18 December 2017

 

রাবি আইবিএ-র ৪র্থ গ্রাজুয়েশন অনুষ্ঠিত

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম ডেস্ক:‘প্রতিযোগিতামূলক উন্মুক্ত অর্থনীতি ও বিশ্বায়নের যুগে দক্ষ জনবল সৃষ্টির মাধ্যমে দেশের সামগ্রিক উন্নয়নে এই ইনস্টিটিউট গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে। বিশ্বায়নের এই যুগে বিশেষায়িত শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। এই ইনস্টিটিউট বাংলাদেশে ব্যবসা ও বাণিজ্য শিক্ষার সেন্টার অব এক্সলেন্স হিসেবে সেই দায়িত্ব পালন করছে। আইবিএ এমন একটি প্লাটফর্ম যার মাধ্যমে দেশের সাধারণ জনগণের আশা-আকাক্সক্ষার প্রতিফলন ঘটিয়ে ইতিবাচক পরিবর্তন আনা সম্ভব।’ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট (আইবিএ)-র চতুর্থ গ্রাজুয়েশন অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দ এ কথাগুলো বলেন।

তাঁরা আরো বলেন, আগামী ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে পরিণত করার জন্য বর্তমান সরকারের নেতৃত্বে যে বিপুল উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ চলছে তার কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছাতে হলে আমাদের দক্ষ মানব সম্পদ খুবই প্রয়োজন। আর এই মানব সম্পদ তৈরিতে ব্যবসায় প্রশাসনকেন্দ্রিক বিদ্যাচর্চায় আইবিএ অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। আমাদের শুধু দক্ষ কর্মী তৈরি করলেই চলবে না। উদ্যোক্তাও তৈরি করতে হবে। তৈরি করতে হবে সৎ, সাহসী ও নিষ্ঠানবান দেশপ্রেমিক নেতৃত্বও। এটা যে অসম্ভব নয় তা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট বিগত পঞ্চাশ বছরে প্রমাণ করেছে। আমরাও সেই সংকল্প নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার গর্বিত অংশীদার হতে চাই। আর সেই স্বপ্ন পূরণের অন্যতম সারথী হবে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ’র স্নাতকরা।

বক্তাগণ আধুনিক প্রযুক্তি ও যুগোপযোগী কোর্স-কারিকুলামের মাধ্যমে মানসম্মত শিক্ষা ও গবেষণা নিশ্চিত করে সকল ক্ষেত্রে সমতা এনে দেশ-জাতি-সমাজের স্বপ্নপূরণে সকলকে একসাথে কাজ করার আহ্বান জানান।

আজ শনিবার সকাল ১০টায় ইনস্টিটিউট চত্বরে এই গ্রাজুয়েশন অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর আব্দুল মান্নান। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সদস্য প্রফেসর এম শাহ্ নওয়াজ আলী। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর মুহম্মদ মিজানউদ্দিনের সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন ইনস্টিটিউটের পরিচালক প্রফেসর মু. রফিকুল ইসলাম এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর মু. এন্তাজুল হক সেখানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী ১২টি ব্যাচের প্রতিটির পরীক্ষায় শীর্ষ স্থান অধিকারী ১২ জন ¯œাতককে প্রধান অতিথি স্বর্ণপদকে ভূষিত করেন। এই অনুষ্ঠানে রাজশাহী জেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার আইবিএ’র শিক্ষার্থীদের কল্যাণে ৩ লক্ষ টাকা অনুদানের চেক প্রদান করেন।

এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এক্সিকিউটিভ এমবিএ (২য়-৪র্থ ব্যাচ), এমবিএ ইভিনিং (৮ম-১০ম ব্যাচ), এমবিএ ডে (৩য়-৫ম ব্যাচ) ও এমবিএ ফর বিবিএ গ্রাজুয়েট্স (৩য়-৫ম ব্যাচ) কোর্সের মোট ৪৪৮ জনকে গ্রাজুয়েশন প্রদান করা হয়। প্রসঙ্গত, ১৯৯৯ সালে প্রতিষ্ঠিত এই ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট (আইবিএ) থেকে এ পর্যন্ত মোট ১,২২০ জন ডিগ্রি লাভ করেছেন। এটি বাংলাদেশে দ্বিতীয় ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট।

রাবি ফাইন্যান্স বিভাগের শিক্ষক জুবায়ের আহমেদ সিমন অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন।-সংবাদ বিজ্ঞপ্তি