Monday, 18 December 2017

 

পিঠা আর বাউল গানে গণবিতে জমজমাট পিঠা উৎসব

বিধান মুখার্জী, গণ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:আদিকাল থেকেই হেমন্ত ঋতুতে কৃষকের ঘরে নতুন ফসল উঠলে আয়োজন করা হয় পিঠা উৎসবের। এই পিঠা বাংলাদেশের সংস্কৃতি আর ঐতিহ্যের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ।যেকোন উৎসব-আনন্দে মিশে আছে রকমারি স্বাদ আর সাজের পিঠা। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার (৩০ জানুয়ারি) গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়েছে দিনব্যাপী 'পিঠা উৎসব ও বাউল সন্ধ্যা ১৪২৩'। পিঠা উৎসবে দর্শনার্থীদের উপস্থিতি ছিল উল্লেখযোগ্য।    

উৎসবে বিভিন্ন বিভাগের প্রায় ৪০ টি পিঠার স্টল অংশ নিয়েছে।ষোলো আনা বাঙ্গালিয়ানা, পিঠা পিডিয়া,টুনাটুনির পিঠা, গ্রাম বাংলার পিঠাঘরসহ বিভিন্ন নামের স্টলগুলোতে ছিল হরেক রকমের পিঠার সমাহার।এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য চিতই, ভাঁপা, চৈ পিঠা, পোয়া, পাকন, পাটিসাপটা, গোলাপ, নকশি, ঘর কন্যা, করি, কুটুম, মিষ্টি বড়া, লবঙ্গ পিঠা, খেঁজুর পিঠা, হাতকুলি, ভিজা পিঠা, , ঝিনুক, শঙ্খ রসের নকশি বিলাস ডিম পিঠাসহ বিভিন্ন পিঠা স্থান পেয়েছে  এই উৎসবে।    

গাজীপুর থেকে পিঠা উৎসবে আসা দর্শনার্থী হিরন শেখ জানান, অঞ্চলভেদে পিঠার ধরনের ভিন্নতা রয়েছে। কিন্তু আমরা হাতে গোনা কয়েক ধরণের পিঠার সাথে পরিচিত। তাই ভিন্ন ভিন্ন অঞ্চলের সুস্বাদু পিঠার স্বাদের সাথে পরিচিত হওয়ার জন্যই মূলত উৎসবে আসা।

উৎসবের ,আয়োজক বিশববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের ভিপি শামিম হোসেন বলেন,  'গ্রাম বাংলার শীতের পিঠা ও বাউল গানের ঐতিহ্য তুলে ধরতেই এই ব্যতিক্রম আয়োজন'।  

এছাড়া সূর্যাস্তের পর থেকে শুরু হয় বাউল গানের আসর।এসময় সুর আর গানের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠান জমিয়ে তোলেন উপস্থিত বাউল শিল্পীরা।সন্ধ্যা সাড়ে আটটায় গানের মধ্যদিয়ে দিনব্যাপী এই উৎসবের সমাপ্তি ঘটে।