Sunday, 23 July 2017

 

রাবি ইনফরমেশন সায়েন্স এন্ড লাইব্রেরী ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ১ম পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

ক্যাম্পাস ডেস্ক:নানা আয়োজন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ইনফরমেশন সায়েন্স এন্ড লাইব্রেরী ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ১ম পুনর্মিলনী আজ শনিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। এদিন সকাল ৯:৩০ মিনিটে বিভাগ সংলগ্ন চত্বরে এই আয়োজনের উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর মুহম্মদ মিজানউদ্দিন। এরপর এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ক্যাম্পাসের মূল সড়ক প্রদক্ষিণ করে কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে যায়। সেখানে অনুষ্ঠিত হয় পুনর্মিলনীর আলোচনা অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপাচার্য প্রসের মুহম্মদ মিজানউদ্দিন।

উপাচার্য তাঁর বক্তব্যে বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনফরমেশন সায়েন্স এন্ড লাইব্রেরী ম্যানেজমেন্ট বিভাগ সামাজিক বিজ্ঞান শিক্ষাধারায় অন্যতম বিভাগ। গত প্রায় ২৫ বছর ধরে এই বিভাগ দেশে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে উচ্চশিক্ষা ও গবেষণায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে। বিভাগের স্নাতকরা পেশাগত ক্ষেত্রে সাফল্যের পাশাপাশি জাতীয় উন্নয়নে বিশেষ অবদান রেখে চলেছেন। তাঁদের সেই সাফল্যে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় গর্বিত। আগামীতেও সাফল্যের সেই ধারা অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

তিনি আরো বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে পুনর্মিলনীর মধ্য দিয়ে বিভাগের সাথে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের যোগাযোগ প্রসারিত হয়। ইনফরমেশন সায়েন্স এন্ড লাইব্রেরী ম্যানেজমেন্ট বিভাগের পুনর্মিলনীও বিভাগের সাথে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বন্ধন আরও দৃঢ় করবে এবং এ্যালামনাসবৃন্দের মধ্যে পারস্পরিক যোগাযোগ বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখবে বলে তিনি প্রত্যাশা জানান।

বিভাগের সভাপতি ড. পার্থ বিপ্লব রায়ের সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপ-উপাচার্য প্রফেসর চৌধুরী সারওয়ার জাহান ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের অধিকর্তা প্রফেসর মো. ফয়জার রহমান। সেখানে স্বাগত বক্তৃতা করেন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. শরিফুল ইসলাম।

এই অনুষ্ঠানে বিভাগের অন্যতম সিনিয়র শিক্ষক ড. মো. রোকনুজ্জামানের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদান উপলক্ষে বিদায়ী সম্মাননা স্মারক প্রদান এবং বিভাগের উন্নয়নে বিশেষ অবদানের জন্য ৭ জন প্রাক্তন শিক্ষার্থীকে বিশেষ সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। এছাড়া ৫ জন কৃতী শিক্ষার্থীকে ‘মেধা বৃত্তি’ ও ১০ জন শিক্ষার্থীকে ‘ছাত্র কল্যাণ বৃত্তি’ প্রদান করা হয়। বিভাগের নিজস্ব অর্থায়নে এসব বৃত্তির সংস্থান করা হয়েছে।

বিভাগের শিক্ষার্থী অন্তরা আনোয়ার ও রাশেদুজ্জামান অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন।

দিনব্যাপী এই আয়োজনে আরো ছিল স্মৃতিচারণ ও এ্যালামনাই কমিটি ঘোষণা।-সংবাদ বিজ্ঞপ্তি