Thursday, 23 November 2017

 

দারিদ্র বিমোচনে সর্বাগ্রে কৃষি শ্রমিকদের বিবেচনায় রাখা প্রয়োজন-কৃষিবিদ মোস্তাফিজুর রহমান

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:সকলেই বলে এই দেশে দারিদ্র বিমোচন করতে হবে। বিশেষ করে দেশে যখন বাজেট প্রনয়ন করা হয় তখন বাজেটের অন্তর্নিহিত ভাবনা থাকে দারিদ্র বিমোচন। আর দারিদ্র বিমোচন করতে হলে আগে দেখতে হবে কোন জায়গায় বা কোন কর্মক্ষেত্রে দরিদ্র মানুষের সংখ্যা বেশি তাহলে দেখা যাবে কৃষি শ্রমিকরাই বেশি দরিদ্র। এবং তাদের কর্মক্ষেত্রের বিষয়টি সর্বাগ্রে বিবেচনায় নেওয়া প্রয়োজন।

সম্প্রতি এগ্রিলাইফ২৪ ডটকমের সাথে এ প্রসঙ্গে আলাপকালে এমনটাই বললেন ওয়ান ফার্মার ম্যানেজিং ডিরেক্টর কৃষিবিদ কেএসএম মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি বলেন, দেশের বিপুল সংখ্যার কৃষি শ্রমিকরা অশিক্ষিত এবং লেখা পড়া জানে না। অদক্ষতার কারণে তারা কোন ইন্ডাস্ট্রিতে শ্রমিক হিসেবে কাজ করতে পারেনা এমনকি দেশের অর্থনীতিতে সর্বোচ্চ অবদান রাখা গার্মেন্টস শিল্পেও তাদের স্থান হয় না। তাদের কাজ করার জায়গা শুধুমাত্র কৃষিক্ষেত্রেই। কিন্তু বাস্তবতা হলো কৃষি কাজ সারা বছর থাকে না ফলে বছরের অধিকাংশ সময়েই এই কৃষি শ্রমিকদের অলস সময় পার করতে হয়।

জনাব মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বছরের অন্য সময়গুলিতে তারা রিয়েল এস্টেটে শ্রমিক হিসেবে কাজ করে করে অর্থনৈতিকভবে বেশ সচ্ছল হচ্ছিল। তবে দুর্ভাগ্যজনকভাবে কর্তমানে রিয়েল এস্টেট সেক্টরে চরম মন্দাভাব বিরাজ করায় তাদের আয়-উপার্জন একবারেই নাই বললেই চলে। এসময় তিনি বলেন ব্যাপক জনগোষ্ঠীকে দারিদ্র বিমোচনের বাহিরে রেখে দেশের সামগ্রিক অর্থনীতি চাঙ্গা করা সম্ভব না।

কাজেই প্রবৃদ্ধি বাড়লেও কিন্তু দারিদ্র বিমোচন সেভাবে হচ্ছে না বলে মনে করেন ওয়ান ফার্মার ম্যানেজিং ডিরেক্টর। দেশের বিত্তশালীরা বড় বড় ব্যবসা-বানিজ্য, ইন্ডাস্ট্রি-মিলস এর মাধ্যমে আয় বৃদ্ধি করলেও সে সম্পদের যদি সুষম বন্টন না হয় তাহলে দরিদ্রদের উন্নতি হবেনা। কাজেই সরকারের এ দিকটি বিবেচনায় নিয়ে এবং বিপুল সংখ্যক লোকের কর্মসংস্থানের নিমিত্তে বিভিন্ন সেক্টরে কাজ করার সুযোগ করে দিতে হবে। দেশের আইনের শাসন ও অর্থনৈতিক ন্যায়বিচার প্রয়োগ করতে হবে। এমন ভাবে বাজেট করতে হবে যেখানে সকল গোষ্ঠীর মানুষের সুযোগ আয়-রোজগারের থাকে।

জনাব মোস্তাফিজুর রহমানের মতে, সমাজে শান্তি আনতে দুটি কাজের সমন্বয় করতে হবে একটি সামাজিক ন্যায়বিচার আর অন্যটি অর্থনৈতিক ন্যায়বিচার। দেশে প্রতিবছর প্রায় ২০ লাখ বেকার লোক শ্রম বাজারে আসছে যাদের সবারই কর্মসংস্থান হচ্ছেনা। দেশের শ্রমবাজারে অর্ধেক লোক অশিক্ষিত যার কারনে সকলকেই নানা সমস্যার সম্মুখিন হতে হয়। এদের সকলকে কাজে লাগিয়ে সুন্দর একটি কর্মমুখি সমাজ গঠনের মাধ্যমে দেশের সকল মানুষ সুখে-শান্তিতে বাস করবে এমনটাই আগামীর প্রত্যাশা করেন ওয়ান ফার্মার ম্যানেজিং ডিরেক্টর কৃষিবিদ কেএসএম মোস্তাফিজুর রহমান।